শ্বাসরুদ্ধকর টাইব্রেকারে ফাইনালে বার্সা

রিয়াল সোসিয়েদাদকে হারিয়ে স্প্যানিশ সুপার কাপের ফাইনালে উঠল বার্সেলোনা।

কোর্দোবায় বুধবার রাতে প্রথম সেমি-ফাইনালে ফ্রেংকি ডি ইয়ংয়ের গোলে এগিয়ে যায় বার্সেলোনা। দ্বিতীয়ার্ধে সমতা টানেন মিকেল ওইয়ারসাবাল। অতিরিক্ত সময়ও ১-১ সমতায় শেষের পর টাইব্রেকারে ৩-২ ব্যবধানে জিতে শিরোপা লড়াইয়ে পা রাখে রোনাল্ড কুমানের দল।

ম্যাচটি ছিল স্প্যানিশ সুপার কাপের সেমিফাইনাল, বার্সার ফরোয়ার্ড লাইনে ছিলেন না দলের মহাতারকা লিওনেল মেসি। ফলে চাপ ছিল পুরো খেলা জুড়ে।

এ দিন পুরো ১২০ মিনিটে একটির বেশি গোল করতে পারেনি বার্সেলোনা। উল্টো সোসিয়েদাদের আক্রমণে কেঁপেছে বার্সার রক্ষণভাগ, বারবার দলকে উদ্ধার করেছেন জার্মান গোলরক্ষক টের স্টেগান।

টাইব্রেকারে প্রথমে শট নেয় রিয়াল সোসিয়েদাদ। নিজের পাঁচটি শট শেষে তারা গোল করতে পারে ২টি। অন্যদিকে বার্সেলোনা তাদের প্রথম চার শটে সফল ঠিক ২ বারই। ম্যাচ নির্ধারণী শটটি নেওয়ার ভার পড়ে রিকি পুইগের কাঁধে। শ্বাসরুদ্ধকর মুহূর্তে গোল দিয়ে দলকে জয়ের দিকে নিয়ে যান তিনি।

তবে ম্যাচের মূল নায়ক নিঃসন্দেহে গোলরক্ষক মার্ক টের স্টেগান। যার অসাধারণ পারফরম্যান্সের কল্যাণে টাইব্রেকারে শ্বাসরুদ্ধকর জয় পেয়েছে বার্সা।

ম্যাচের প্রথম গোলটি করেন ফ্রেংকি ডি ইয়ং। ৩৯ মিনিটের সময় গ্রিজম্যানের ক্রসে হেডে বল জালে জড়ান বার্সার মিডফিল্ডার। দ্বিতীয়ার্ধে গোল শোধের জন্য বেশি অপেক্ষা করতে হয়নি সোসিয়েদাদকে। ম্যাচের ৫১ মিনিটের সময় ডি-বক্সের মধ্যে হ্যান্ডবল করেন ফ্রেংকি ডি ইয়ং। ফলে পেনাল্টি পায় সোসিয়েদাদ। সফল স্পট কিকে দলকে লিড এনে দেন মিকেল ওয়ারজাবাল।

এরপর বেশ কয়েকটি সুযোগ আসে বার্সেলোনার সামনে। কিন্তু কোনোটিই কাজে লাগাতে পারেননি ওসুমানে দেম্বেলে, অ্যান্তনিও গ্রিজম্যানরা। নির্ধারিত ৯০ মিনিটে আর হয়নি গোল। ফলে ম্যাচ গড়ায় অতিরিক্ত ত্রিশ মিনিটে।

দ্বিতীয় সেমি-ফাইনালে বৃহস্পতিবার মুখোমুখি হবে রিয়াল মাদ্রিদ ও আথলেতিক বিলবাও। আর রবিবার হবে ফাইনাল ম্যাচ।


আরও পড়ুন