বাংলাকে জাতিসংঘের দাপ্তরিক ভাষা করার দাবি কাদেরের

বাংলা ভাষাকে জাতিসংঘের দাপ্তরিক ভাষা হিসেবে অন্তর্ভুক্ত করার দাবি জানিয়েছেন আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। আজ রোববার মহান শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে পুষ্পার্ঘ্য অর্পণ শেষে তিনি এ দাবি জানান।

ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘জনসংখ্যার ভিত্তিতে বাংলা ভাষা হচ্ছে বিশ্বের ষষ্ঠ ভাষা। কিন্তু জাতিসংঘ এখনও বাংলা ভাষাকে তাদের দাপ্তরিক ভাষা হিসেবে গ্রহণ করেনি, স্বীকৃতি দেয়নি। আমরা আজকে একুশের মঞ্চ থেকে সেই দাবি জানাচ্ছি।’

একুশ আর একাত্তরের চেতনা একই সূত্রে গাঁথা মন্তব্য করে তিনি বলেন, ‘একুশের চেতনা, একাত্তরের চেতনা একই চেতনার ধারাবাহিকতা। একুশের চেতনার পথ ধরে একাত্তরে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নেতৃত্বে স্বাধীনতা সংগ্রামের মাধ্যমে আমরা বিজয় অর্জন করি। স্বাধীনতার এত বছর পরেও আমরা দাবি করতে পারি না আমরা আমাদের বিজয়কে পুরোপুরি সুসংহত করতে পেরেছি।’

ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘একাত্তরের চেতনা একুশের চেতনার প্রধান শত্রু হচ্ছে সাম্প্রদায়িকতা। সাম্প্রদায়িকতার ডালপালা বাংলাদেশে এখনো রয়ে গেছে। আমরা সেই সাম্প্রদায়িকতার ডালপালা উপড়ে ফেলতে চাই। বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনার নেতৃত্বে এ বিষবৃক্ষকে উপড়ে ফেলে সুসংহত করতে চাই এটাই হোক এবারের একুশের শপথ।’

তিনি বলেন, ‘আমরা আমাদের মাতৃভাষাকে জীবনের সর্বস্তরে প্রচলন করতে পারিনি। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আদালত সর্বোচ্চ আদালতে বাংলা ভাষার প্রচলনের যে উদ্যোগ নিয়েছে সেই উদ্যোগকে এগিয়ে নিতে হবে।’

এ সময় আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য মতিয়া চৌধুরী, কর্নেল (অব.) ফারুক খান, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ, সাংস্কৃতিক সম্পাদক অসীম কুমার উকিল প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।


আরও পড়ুন