ওমরা পালনে টিকা বাধ্যতামূলক

মহামারি করোনাভাইরাস প্রতিরোধে টিকা নেওয়া ব্যক্তিদেরই কেবল পবিত্র রমজান মাসের শুরু থেকে ওমরাহ পালনের অনুমতি দেওয়া হবে বলে জানিয়েছে সৌদি আরব সরকার। গতকাল সোমবার এক বিবৃতিতে দেশটির হজ ও ওমরাহ মন্ত্রণালয় এ খবর জানায়।

বিবৃতিতে বলা হয়েছে, ওমরাহ পালনের অনুমতি পাওয়ার জন্য তিন ক্যাটাগরির ব্যক্তিকে ‘নিরাপদ’ বলে বিবেচনা করা হবে। তারা হচ্ছেন- যারা ইতোমধ্যে করোনা টিকার উভয় ডোজ গ্রহণ করেছেন, যারা কমপক্ষে ১৪ দিন আগে টিকার প্রথম ডোজ নিয়েছেন এবং করোনায় আক্রান্ত হয়ে যারা সুস্থ হয়ে উঠেছেন। এ তিন ক্যাটাগরির ব্যক্তিরাই ওমরাহ পালন এবং মক্কার পবিত্র মসজিদুল হারামে নামাজ আদায়ের অনুমতি পাবেন। এ ছাড়া মদীনা নগরীর পবিত্র মসজিদে নববীতে প্রবেশের জন্যও একই নিয়ম প্রযোজ্য হবে।

মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, আসন্ন রমজান মাসের শুরু থেকে নতুন এই নিয়ম কার্যকর করা হবে। তবে কতদিন এই নিয়ম বহাল থাকবে সেটা পরিষ্কার করা হয়নি।

আগামী ১২ এপ্রিল সৌদি আরবে পবিত্র রমজান মাস শুরু হতে পারে। সাম্প্রতিক সময়ে সৌদি আরবে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ বৃদ্ধি পেয়েছে। আর তাই আগামী হজ মৌসুম পর্যন্ত এই নিয়ম কার্যকর রাখা হবে কি না তা এখনও নিশ্চিত নয়।

উল্লেখ্য, বছরের যেকোনো সময় পবিত্র ওমরাহ পালন করা যায়। এর অংশ হিসেবে একজন মুসলিম মক্কা ও মদিনায় নির্দিষ্ট কিছু ধর্মীয় আচার পালন করেন। ২০১৯ সালে এক কোটি ৯০ লাখ মানুষ ওমরাহ পালন করেছে। কিন্তু করোনাভাইরাস মহামারির কারণে সৌদি আরব গত বছরের মার্চ মাসে ওমরাহ পালন স্থগিত করে। পরবর্তীতে একই বছরের অক্টোবর মাসে সীমিত আকারে ওমরাহ পালনের অনুমতি দেয় দেশটি।

সৌদি আরবে এখন পর্যন্ত তিন লাখ ৯৩ হাজারেরও বেশি মানুষ করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। মারা গেছেন পৌণে সাত হাজার মানুষ। সৌদি স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের তথ্য অনুযায়ী, দেশটিতে এখন পর্যন্ত ৫০ লাখের বেশি মানুষকে করোনার টিকা দেওয়া হয়েছে। মধ্যপ্রাচ্যের এই দেশটির জনসংখ্যা তিন কোটি ৪০ লাখের বেশি।


আরও পড়ুন