কুলিয়ারচর - April 18, 2021

কুলিয়ারচরে আম পাড়াকে কেন্দ্র করে সংঘর্ঘ, নিহত ১

কিশোরগঞ্জের কুলিয়ারচরে শিশুদের আম পাড়াকে কেন্দ্র করে ভাঙচুর ও হামলার ঘটনা ঘটেছে। হামলায় মো: লিটন মিয়া (৪০) নামে এক অটোচালক নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় আহত হয়েছেন আরো পাঁচজন।

শনিবার সকাল ৬টার দিকে উপজেলার কুলিয়ারচর মধ্য লালপুর গ্রামে এ ঘটনা ঘটেছে।

নিহতের ছেলে মো: রাকিব (২০) জানান, রমজানের প্রথম দিন ভৈরব উপজেলার মিরাচর (উমরা বাড়ি) মো: শামীম মিয়ার সাত বছরের ছেলে সাব্বির ঈদগাহ মাঠের আমগাছ থেকে আম পাড়ার জন্য ঢিল ছুঁড়ে। ঢিল গিয়ে পাশের বাড়ির মেরছি মিয়ার নাতি মুরছালিনের (৫) কপালে লাগে। এতে মেরছি মিয়ার বাড়ির লোকজন শামীম মিয়াকে মারধর ও তার বাড়িতে হামলা ও ভাঙচুর করে।

মো: রাকিব জানান, শনিবার বিকেল ৩টার দিকে এলাকায় একটি শালিশের আয়োজন করা হয়। প্রতিপক্ষ মেরছি মিয়াদের ভয়ে শুক্রবার রাতে শামীম মিয়া ও তার ভাই বাড়ি ছেড়ে আমাদের বাড়িতে আশ্রয় নেয়। পরে শালিশের আগেই ভৈরব উপজেলার মিরাচর ওমরা বাড়ির আব্দুস সাত্তারের ছেলে মেরছি মিয়া (৪৮), রুপা গাজীর ছেলে আতিকুল (৪২) ও আলমগীরসহ (৪৪) অর্ধশতাধিক মানুষ শনিবার ভোর ৬টার দিকে আমাদের বাড়িতে অতর্কিত হামলা করে।

তিনি বলেন, আমার বাবা জীবন বাঁচাতে হামলাকারীদের কাছে প্রাণ ভিক্ষা চাইলেও হামলাকারীদের নিষ্ঠুরতা থেকে রক্ষা পায়নি। তারা ধারালো দায়ের আঘাতে ঘটনাস্থলেই মারা যান। এ সময় হামলাকারীরা ইদ্রিস মিয়া, মঞ্জিল মিয়া, শামীম মিয়া, অহিদ মিয়া, জিলানী ও আকবর আলীর ঘর ভাঙচুর ও লুটপাঠ করে।

হামলায় শামীম (৩৫), রাকিব (২০), সাদেক (৪৫), মিজান (৩২) ও জুয়েলসহ (২৮) পাঁচজন আহত হয়।

খবর পেয়ে কুলিয়ারচর থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে লিটনের লাশ উদ্ধার করে।

ভৈরব সার্কেলের সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার রেজওয়ান দীপু, কুলিয়ারচর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রুবাইয়াৎ ফেরদৌসী, ভৈরব উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা লুভনা ফারজানা কুলিয়ারচর থানা অফিসার ইনচার্জ (ওসি) এ কে এম সুলতান মাহমুদ, ভৈরব থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো: শাহীন ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।

এই বিষয়ে কুলিয়ারচর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) এ কে এম সুলতান মাহমুদ বলেন, নিহতের লাশ ময়নাতদন্তের জন্য কিশোরগঞ্জ আধুনিক সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় কুলিয়ারচর থানায় একটি মামলার প্রস্তুতি চলছে।


আরও পড়ুন