অবৈধ হ্যান্ডসেট বন্ধের কার্যক্রম শুরু

অবৈধ ও নকল হ্যান্ডসেট বন্ধে ন্যাশনাল ইকুইপমেন্ট আইডেন্টিটি রেজিস্টারের (এনইআইআর) পরীক্ষামূলক চালু কার্যক্রম চালু হয়েছে। আজ বৃহস্পতিবার ডাক ও টেলিযোগাযোগমন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার ভার্চুয়াল প্লাটফর্মের মাধ্যমে এই কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন। আগামী তিন মাস এ কার্যক্রম চলবে। এরপর চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত জানানো হবে।

‘টেলিকম সেক্টরে এনইআইআর একটি ঐতিহাসিক মাইলফলক’ উল্লেখ করে ডাক ও টেলিযোগাযোগমন্ত্রী বলেন, টেলিযোগাযোগ প্রযুক্তির ব্যাপক সম্প্রসারণের পাশাপাশি ডিজিটাল অপরাধের বিস্তারের হারও অনেক বেড়েছে। সাইবার অপরাধ বৃদ্ধির হার নিয়ন্ত্রণ আনতে না পারলে পরিস্থিতি ভয়াবহ রূপ নিতে পারে। এর সাথে রয়েছে অবৈধ হ্যান্ডসেট চোরাচালান ও ডিজিটাল নিরাপত্তা। এই চ্যালেঞ্জ মোকাবিলায় এনইআইআর চালু করা হলো, যা এসব ক্ষেত্রে ফলপ্রসূ অবদান রাখবে।

এ পদ্ধতিকে কার্যত দেশের জনগণকে প্রতারণা থেকে নিরাপদ রাখার অন্যতম হাতিয়ার হিসেবে উল্লেখ করে মোস্তাফা জব্বার নতুন প্রবর্তিত এই পদ্ধতিতে যাতে জনগণ সামান্যতম ভোগান্তির শিকার না হয় সেদিকে সর্বোচ্চ সতর্ক থাকার জন্য সংশ্লিষ্টদের নির্দেশ প্রদান করেন।

মোস্তাফা জব্বার বলেন, দেশিয় প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠানের তৈরি সফটওয়্যারের মাধ্যমে এনআইআর প্রবর্তন একটি যুগান্তকারি ঘটনা। মোবাইল চুরি, ছিনতাই, সরকারি রাজস্ব ফাঁকিরোধ ছাড়াও ডিজিটাল নিরাপত্তার ক্ষেত্রে প্রবর্তিত এই পদ্ধতিটি কার্যকর ভূমিকা রাখবে।

মন্ত্রী জোর দিয়ে বলেন, বিটিআরসিকে বিদ্যমান প্রতিটি সেটের স্বয়ংক্রীয়ভাবে রেজিস্ট্রেশন নিশ্চিত করতে হবে। জনগণ কোনো অবস্থাতেই যাতে ভোগান্তির শিকার না হয় সেদিকে বিশেষ দৃষ্টি রাখার আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, কোনো অবস্থাতেই কোনো অভিযোগ যেন না আসে। কোন ব্যবহারকারির কাছ থেকে যেন কোনো অভিযোগ না পাই। মোবাইল ব্যবহারকারি অনেকেই শিক্ষিত নয়, রেজিস্ট্রেশনের ব্যাপারে তাদের করণীয় আমাদেরকেই করতে হবে। গ্রাহকের ভোগান্তি হলে মহৎ কাজটির উদ্দেশ্য ম্লান হয়ে যাবে।

প্রসঙ্গত, মোবাইল হ্যান্ডসেট বিষয়ে যেকোনো সমস্যার সমাধান ও যাবতীয় তথ্য মিলবে বিটিআরসির হেল্পডেস্ক ১০০ নম্বরে ফোন করে। এ ছাড়া near.btrc.gov.bd ওয়েবসাইটে গিয়ে সব ধরণের তথ্য পাওয়া যাবে।


আরও পড়ুন