সৈয়দ আশরাফের ম্যুরাল ভাঙচুরকারী তিন দিনের রিমান্ডে

কিশোরগঞ্জে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক ও জনপ্রশাসন মন্ত্রী প্রয়াত সৈয়দ আশরাফুল ইসলামের নবনির্মিত ম্যুরাল ভাঙচুরের ঘটনায় গ্রেপ্তার হওয়া দুস্কৃতিকারী পারভেজ (৪০) কে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তিন দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত।

রোববার (৮ আগস্ট) কিশোরগঞ্জের সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মুহম্মদ আবদুন নূর রিমান্ড শুনানি শেষে তার তিনদিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

এর আগে গত ৩১ জুলাই পারভেজকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আদালতে ৫ দিনের রিমান্ড আবেদন করেন মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা পুলিশ পরিদর্শক জয়নাল আবেদীন।

করোনা পরিস্থিতিতে আদালতের স্বাভাবিক কার্যক্রম বন্ধ থাকায় বিচারক সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মুহম্মদ আবদুন নূর রিমান্ড শুনানির জন্য ৮ আগস্ট তারিখ ধার্য্য করে পারভেজকে কারাগারে পাঠিয়েছিলেন।

ম্যুরাল ভাঙচুরকারী পারভেজ জেলার ইটনা উপজেলার রায়টুটী পশ্চিমপাড়ার মৃত শাহজাহান চৌধুরীর ছেলে। সে শহরের চরশোলাকিয়া বনানী মোড় এলাকার একটি বাসায় ভাড়া থাকে।

আদালত থেকে পারভেজকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তিনদিনের রিমান্ড মঞ্জুর হওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করে কিশোরগঞ্জ সদর মডেল থানার ওসি মো. আবুবকর সিদ্দিক জানান, সোমবার (৯ আগস্ট) পারভেজকে রিমান্ডে এনে জিজ্ঞাসাবাদ শুরু করা হবে।

শহরের সৈয়দ নজরুল ইসলাম চত্বর সংলগ্ন স্থানে নব-নির্মিত সৈয়দ আশরাফুল ইসলামের ম্যুরালের উদ্বোধনী নামফলক এবং ম্যুরালের কিছু অংশ ভাঙচুরের ঘটনা গত ২৯ জুলাই সন্ধ্যায় জানাজানি হলে এ নিয়ে তোলপাড় সৃষ্টি হয়। এ ঘটনায় চারদিকে নিন্দা ও ধিক্কারের ঝড় উঠে।

পরদিন ৩০ জুলাই কিশোরগঞ্জ পৌরসভার সহকারী প্রকৌশলী মো. রফিকুল ইসলাম বাদী হয়ে অজ্ঞাত আসামিদের বিরুদ্ধে সদর মডেল থানায় বিশেষ ক্ষমতা আইনে মামলা (নং-২৮) দায়ের করেন। পরে ওইদিনই বিকালে অভিযান চালিয়ে এ ঘটনায় জড়িত অভিযোগে পারভেজকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ।


আরও পড়ুন