কিশোরগঞ্জে সংঘর্ষ থামাতে গিয়ে বৃদ্ধা খুন

প্রতিবেশির সংঘর্ষ থামাতে গিয়ে বানেছা বেগম (৬০) নামে এক বৃদ্ধা খুন হয়েছেন। ঘটনাটি ঘটেছে বৃহস্পতিবার সন্ধ্যার দিকে কিশোরগঞ্জ সদর উপজেলার রশিদাবাদ ইউনিয়নের শিমুলিয়া গ্রামে। নিহত বানেছা শিমুলিয়া গ্রামের মৃত নূর মিয়ার স্ত্রী।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, বুধবার সন্ধ্যার পর শিমুলিয়া গামের শুকুর মামুদের ছেলে সাদেক (১৮) বাড়ির পাশে বসে পায়খানা করছিল। এ সময় প্রতিবেশি রতনের ছেলে শামীম (৮) টর্চ লাইট জ্বালিয়ে যাওয়ার সময় টর্চ লাইটের আলো সাদেকের ওপর পড়ে। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে সাদেক লাঠি দিয়ে শামীমকে আঘাত করলে শামীম পানিতে পড়ে যায়। পরে শামীমকে হাসপাতালে নিয়ে চিকিৎসা করানো হয়। এ ব্যাপারে বৃহস্পতিবার সন্ধ্যার দিকে রতন ও তার লোকজন সাদেকের বাড়িতে অভিযোগ দিতে গেলে প্রথমে কথা কাটাকাটি হয়। এক পর্যায়ে দুপক্ষ সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। প্রতিবেশি বৃদ্ধা বানেছা বেগম সংঘর্ষ থামাতে গেলে তার মাথায় লাঠির আঘাত পড়ে। এ সময় বানেছা ছাড়া আরও চারজন আহত হন।

তাদেরকে কিশোরগঞ্জ শহীদ সৈয়দ নজরুল ইসলাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে গেলে বানেছার মৃত্যু হয়। আহত অন্যরা হলেন রতন, আবু হানিফ, বকুল ও নাজমা।

কিশোরগঞ্জ মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আবু বকর সিদ্দিক ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। বর্তমানে পরিস্থিতি শান্ত রয়েছে। এ বিষয়ে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে তিনি জানান।


আরও পড়ুন