জাপা এমপি রাঙ্গাকে ‘শ্রেষ্ঠ চাঁদাবাজ’ বললেন কাদের মির্জা

জাতীয় পার্টির সাংসদ ও বিরোধী দলীয় চিফ হুইপ মসিউর রহমান রাঙ্গাকে পরিবহন জগতের ‘শ্রেষ্ঠ চাঁদাবাজ’ আখ্যা দিয়ে নোয়াখালীর বসুরহাট পৌরসভার মেয়র আবদুল কাদের মির্জা বলেন, ‘রাঙ্গা সাহেব পরিবহন সেক্টরের খবর কী? এ পরিবহন জগতকে ধুয়ে-মুছে খেয়ে ফেলেছেন। আজকে বড় বড় কথা বলেন। আর আমাকে বলেন আমি সারা দেশে বিতর্কিত ও সন্ত্রাসী। শরম যদি লাগে গো ঘোমটা দিয়ে চল গো।’

আজ শনিবার বেলা ১১টায় বসুরহাট পৌরসভা মিলনায়তনে এক সাংবাদ সম্মেলনে এসব কথা বলেন আবদুল কাদের মির্জা। এসময় সাংবাদিক ছাড়াও পৌর হলের ভেতরে-বাইরে বিপুল সংখ্যক দলীয় নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

আলোচিত এই মেয়র বলেন, ‘বঙ্গবন্ধু হত্যাকাণ্ডের মাস্টার মাইন্ড ছিল জেনারেল জিয়াউর রহমান, জিয়াউর রহমান হত্যাকাণ্ডের মাস্টার মাইন্ড ছিল জেনারেল হুসাইন মোহাম্মদ এরশাদ। ভোট চুরি, টেন্ডারবাজি, নিয়োগ বাণিজ্য, অপরাজনীতি ও সকল অনিয়মের বিরুদ্ধে যখন আমি বলি, তখন আমার দলসহ সব দলের অপশক্তি আমার বিরুদ্ধে এক হয়ে লেগে গেছে।’

কাদের মির্জা বলেন, ‘এই রাঙ্গা সেই রাঙ্গা, যে রাঙ্গাকে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তাকে পৌরসভার মেয়র থেকে এনে মন্ত্রী বানিয়েছেন। আর আজকে সেই রাঙ্গা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে বলে স্বৈরাচারী। এ ছাড়া সে বলেছিল, এরশাদ বিরোধী গণঅভ্যুত্থানে শহীদ নূর হোসেন নাকি মাদকাসক্ত-ইয়াবাখোর। তখন কি ইয়াবা ছিল? কোথা থেকে এদেরকে এনে মন্ত্রী বানায় বুঝি না। এরা বানর, বানর।’

এসময় বড়ভাই ওবায়দুল কাদেরের তীব্র সমালোচনা করে কাদের মির্জা বলেন, ‘আপনি বলেছেন ঘরে ঘরে চাকরি দিবেন। কিন্তু সেটা না দিলেও ঘরে ঘরে মামলা দিয়েছেন। আপনার স্ত্রী ইসরাতুন্নেছা কাদের নোয়াখালীর অপরাজনীতির হোতাদের সঙ্গে হাত মিলি আমার নেতাকর্মীদের হয়রানি করছে। সে আমাকে হত্যা করার জন্য কোটি কোটি টাকা দিয়েছে। ওবায়দুল কাদের সাহেব এর জবাব আপনাকে দিতে হবে।’


আরও পড়ুন