টাইগারদের ‘হুমকি’ দিলো পিএনজি

স্কটল্যান্ডের সঙ্গে হেরে বিশ্বকাপ শুরু হয়েছিল বাংলাদেশের। আইসিসির সহযোগী দেশটির সঙ্গে টাইগারদের এমন লজ্জাজনক হারের পর আত্মবিশ্বাস বেড়ে যায় অন্য দলগুলোর। ওমানও চেয়েছিল বাংলাদেশের দুর্বলতাকে কাজে লাগাতে যদিও শেষ পর্যন্ত সফল হয়নি তারা। তবে এবার স্কটিশদের কাছ থেকে পাওয়া অনুপ্রেরণাকে পুঁজি করে বাংলাদেশের সঙ্গে অঘটনের হুঙ্কার দিয়ে রাখলো পাপুয়া নিউ গিনি (পিএনজি)।

বিশ্বকাপের প্রথম পর্বে ‘বি’ গ্রুপের শেষ ম্যাচে বাংলাদেশের প্রতিপক্ষ পিএনজি। প্রথমবার বিশ্বকাপ খেলতে আসা দলটি সবশেষ দুই ম্যাচে ওমান ও স্কটল্যান্ডের সঙ্গে হেরেছে। কিন্তু তাতেও আত্মবিশ্বাসে বিন্দুমাত্র ছেদ ধরেনি। শেষ ম্যাচে বাংলাদেশের সঙ্গে জিতে ইতিহাস গড়তে চায় বলে জানিয়েছেন অলরাউন্ডার চার্লস আমিনি। আজ বুধবার ওমান ক্রিকেট একাডেমি মাঠে সংবাদ সম্মেলনে আমিনি বললেন, ‘বাংলাদেশের বিপক্ষে স্কটল্যান্ডের জয় তাদের জন্য প্রেরণার।’

বাংলাদেশকে হারাতে পারলে মূল পর্বে যাওয়ার সুযোগ আছে তাদের সামনেও। সেক্ষেত্রে পরের ম্যাচে হারতে হবে ওমানকে। সমীকরণ কঠিন কিন্তু আত্মবিশ্বাস জমিয়ে রাখা এই ক্রিকেটার বলেন, ‘প্রথম দুই ম্যাচ যদিও হেরেছি, তারপরও এখনও আমাদের সুযোগ আছে। স্কটল্যান্ড প্রথম ম্যাচে অঘটন ঘটিয়েছে। আমাদের বিশ্বাস আছে, আমরা একইরকম কিছু করতে পারি।’

প্রথমবার বিশ্বকাপে আসলেও এখনো কোনো জয় পায়নি পিএনজি। এবার বাংলাদেশের বিপক্ষে সেই অধরা স্বপ্নকে সত্যি করতে প্রস্তুত তারা। এ নিয়ে আমিনি বলেন, ‘প্রথম কাজ হবে জয়ের চেষ্টা করা। বিশ্বকাপে একটি ম্যাচ জিততে পারলে তা হবে ইতিহাস। এটিই আমাদের মাথায় আছে আপাতত। এরপর যা হওয়ার, তা আমাদের নিয়ন্ত্রণে নেই। তবে আমরা সর্বোচ্চ চেষ্টা করব। যদি এমন পরিস্থিতি আসে যে নিজেদের রান রেট নিয়ে কিছু করার সুযোগ আছে, তাহলে চেষ্টা করব সেভাবে জিততে।’

তিনি বলেন, ‘আমরা যত ম্যাচ খেলেছি, সম্ভবত আমাদের জন্য এটি সবচেয়ে বড় সুযোগ। বিশ্বের সেরা টি-টোয়েন্টি দলগুলির একটির বিপক্ষে আমাদের প্রথম লড়াই। বিশ্বকাপের আগে অস্ট্রেলিয়া ও নিউ জিল্যান্ডকে হারিয়ে ওরা খুব ভালো ফর্মে ছিল। এখানে যদিও প্রথম ম্যাচে হেরেছে, তারপরও ওরা ভালো দল। বিশ্বকাপে খেলতে পেরে আমরা গর্বিত। আমাদের এটি প্রথম বিশ্বকাপ। কালকের ম্যাচটি খেলতে আমরা মুখিয়ে আছি।’


আরও পড়ুন