হাসপাতালে রওশনকে দেখে এলেন বিদিশা

ঢাকার সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে (সিএমএইচ) চিকিৎসাধীন জাতীয় পার্টির প্রধান পৃষ্ঠপোষক, সংসদের বিরোধীদলীয় নেতা রওশন এরশাদকে দেখে এলেন বিদিশা সিদ্দিক। আজ রোববার বেলা ১১টার দিকে ছেলে শাহতা জারাব এরিককে নিয়ে তিনি হাসপাতালে যান।

রওশন এরশাদের সঙ্গে দেখা করার পর বিদিশা বলেন, ‘ম্যাডামের শারীরিক অবস্থা খুব দুর্বল। কথা জড়িয়ে যাচ্ছে। আমরা কিছুক্ষণ তার পাশে ছিলাম। তিনি আমার ও এরিকের কথা শুনেছেন। আমি বলেছি, শাদের জন্য কোনো চিন্তা করবেন না। আমরা আছি।’

এর আগে ফুসফুসের জটিলতা নিয়ে গত ১৪ আগস্ট ঢাকার সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে (সিএমএইচ) ভর্তি হন রওশন। ২৫ অগাস্ট তাকে আইসিইউ থেকে সিএমএইচের অফিসার্স ফ্যামিলি ওয়ার্ডের ভিভিআইপি কেবিনে স্থানান্তর করা হয়েছিল। পরে আবার আইসিইউওতে ফেরত নেওয়া হয়। বর্তমানে রওশনকে অক্সিজেন দেওয়া লাগছে না। রওশন এরশাদের পাশে দাঁড়িয়ে তার সুস্থতার জন্য দোয়া করার কথা জানিয়েছেন বিদিশা।

জাতীয় পার্টির প্রতিষ্ঠাতা এইচ এম এরশাদের প্রথম স্ত্রী রওশন জাতীয় পার্টিতে রয়েছেন প্রধান পৃষ্ঠপোষক পদে। টানা দ্বিতীয় মেয়াদে তিনি সংসদে বিরোধীদলীয় নেতার পদে রয়েছেন। তার ছেলে রাহগীর আল মাহি শাদ (শাদ এরশাদ) বাবার আসনে সংসদ সদস্য হয়েছেন।

এরশাদের মৃত্যুর পর তার ভাই জিএম কাদের দলটির চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন। তিনি সংসদে বিরোধীদলীয় উপনেতার দায়িত্বে রয়েছেন। গত ১৪ জুলাই এরশাদের মৃত্যুবার্ষিকীতে ছেলে এরিক তার সৎ মা রওশন এরশাদকে জাতীয় পার্টির নতুন চেয়ারম্যান ঘোষণা দেন।

এইচ এম এরশাদের সঙ্গে বিয়ের সূত্রে জাতীয় পার্টিতে পদ নিয়ে সক্রিয় হয়েছিলেন বিদিশা। কিন্তু বিচ্ছেদের পর হারিয়ে যান দল থেকে। এখন আবার জাতীয় পার্টিতে সক্রিয় হতে চাইছেন তিনি। তবে বিদিশার ভাষ্য, তিনি জাতীয় পার্টির পুনর্গঠন চান।


আরও পড়ুন