বিএনপির ন্যায়সঙ্গত যেকোনো আন্দোলনে থাকবে নাগরিক ঐক্য

বিএনপির ন্যায়সঙ্গত যেকোনো আন্দোলনে আছেন, থাকবেন বলে জানিয়েছেন নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক মাহমুদুর রহমান মান্না। আজ শনিবার নয়াপল্টনে খালেদা জিয়ার মুক্তি ও উন্নত চিকিৎসার জন্য বিদেশ নেওয়ার অনুমতির দাবিতে বিএনপির চলমান গণঅনশন কর্মসূচিতে সংহতি জানিয়ে তিনি এ কথা বলেন।

মান্না বলেন, ‘সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়া আজ গুরুতর অসুস্থ। সরকার তার উন্নত চিকিৎসায় বিদেশ যেতে দিচ্ছে না। এত নিষ্ঠুর সরকার হতে পারে ভাবতে পারছি না। আমি বিএনপি নেতাদের উদ্দেশে বলতে চাই, আমি ও আমার দল নাগরিক ঐক্য বিএনপির ন্যায়সঙ্গত যেকোনো আন্দোলনে আছে, থাকবে।’

এ সময় সরকার চাপে না পর্যন্ত আন্দোলন অব্যাহত রাখার আহ্বান জানান নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক। তিনি বলেন, ‘এই সরকারের কাছে দাবি পেশ করে কোন লাভ হবে না। গলায় গামছা দিয়ে দাবি আদায় করতে হবে।’

ভারতের সাম্প্রতিক কৃষক আন্দোলনের কথা উল্লেখ করে মান্না বলেন, ‘এত বড় নেতা কৃষকদের কাছে ক্ষমা চেয়েছেন এবং কৃষি ঋণ মওকুফ করে দিতে বাধ্য হয়েছেন। অপেক্ষা করুন, দিন আসবে আমাদের ইনিও ক্ষমা চাইবেন। কিন্তু জনগণ তাকে ক্ষমা করবেন না।’

২০ দলীয় জোটের শরিক জাতীয় পার্টির (কাজী জাফর) মহাসচিব হাসান হাবিব লিংকন বলেন, ‘দেশমাতা বেগম খালেদা জিয়া আজ জীবন-মৃত্যুর সন্ধিক্ষণে। এভারকেয়ার হাসপাতালে মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ছেন, আর গণভবনে বসে একজন হায়েনার হাসি হাসছেন। ’

প্রধানমন্ত্রীকে উদ্দেশে তিনি বলেন, ‘আপনি প্রতিহিংসার রাজনীতি করছেন। আপনি এই জীঘাংসার রাজনীতি থেকে ফিরে আসুন। খালেদা জিয়াকে বিদেশে পাঠিয়ে চিকিৎসার ব্যবস্থা করুন।’

সকাল ৯টা থেকে কর্মসূচি শুরু হওয়ার কথা থাকলেও এর এক ঘণ্টা আগে থেকে শতশত নেতাকর্মী নয়াপল্টনে দলীয় কার্যালয়ের সামনের সড়কে অবস্থান নেয়। দুপুর ১২টা পর্যন্ত পল্টনের এক পাশের সড়ক নেতাকর্মীদের অবস্থানে পরিপূর্ণ হয়ে যায়। অনশনে সংহতি জানিয়ে ২০ দলীয় জোট ও জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের বিভিন্ন শরিক দলের নেতা, সাংবাদিক ইউনিয়নের নেতাসহ বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকরা বক্তব্য রাখছেন।

জামায়াতের আব্দুল হালিম বলেন, ‘খালেদা জিয়া শুধু বিএনপি চেয়ারপারসন নয়, তিনি দেশের জনগণের নন্দিত নেত্রী। তিনি কোনো সাধারণ নাগরিক নন। আল্লাহর কাছে দোয়া করি, এ নেত্রীকে যেন তিনি সুস্থতা দান করে আমাদের মাঝে ফিরিয়ে দেন। সরকারকে বলব অবিলম্বে সাবেক প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়াকে মুক্ত করে বিদেশে উন্নত চিকিৎসার ব্যবস্থা করুন।’


আরও পড়ুন