হাসানকে ফিরিয়ে তাইজুলের পাঁচ

চট্টগ্রাম টেস্টের প্রথম দিনটি ছিল বাংলাদেশের। দ্বিতীয় দিনটি পাকিস্তানের।

আর তৃতীয় দিনটি এখনো বাংলাদেশের না বলা গেলেও স্পিনার তাইজুলের বলা চলে।

একাই ধসিয়ে দিচ্ছেন পাকিস্তানের ইনিংস। ইতোমধ্যে ৫ উইকেট শিকার করেছেন।

তাইজুলের ঘূর্ণিতে ভর করে এখন লিড পাওয়ার স্বপ্ন দেখছে বাংলাদেশ। কারণ এ মুহূর্তে মাঠে সফরকারীদের স্বীকৃত ব্যাটার ফাহিম আশরাফ।

আজ তৃতীয় দিনে শিশির ভেজা সকালে স্পিন ভেলকি দেখিয়ে ৩ উইকেট শিকার করেন তাইজুল।

সাজঘরে ফেরান আবদুল্লাহ শফিককে। তাইজুলের ঘূর্ণিতে রানের খাতা খোলার আগেই সাজঘরে ফেরেন আজহার আলি। ফাওয়াদ আজমকে ৮ রানের বেশি করতে দেননি তাইজুল।

এরপর এই বাঁহাতি স্পিনারের শিকার সেঞ্চুরিয়ান আবিদ আলি। আবিদকে এলবিডব্লিউ করে দেন তাইজুল। পিছিয়ে গিয়ে বল ব‍্যাটে খেলতে পারেননি আবিদ। আম্পায়ার আউট দিলে রিভিউ নেন তিনি। বল ট্র‍্যাকিংয়ে দেখা যায়, বল ছুঁয়ে যেত লেগ স্টাম্প। টিকে যায় রিভিউ, ফিরে যান আবিদ।

২৮২ বলে ১২ চার ও দুই ছক্কায় ১৩৩ রান করেন এই ওপেনার।

আবিদের পর ব্যাট হাতে নেমে ৯৬তম ওভারের প্রথম বলে চার ও পরের বলে ছক্কা হাঁকান হাসান।

তাইজুলের করা তৃতীয় ডেলিভারিকেও বাউন্ডারি হাঁকাতে উইকেটের সামনে এসে মারার চেষ্টা করেন।
কিন্তু ব্যর্থ হন। বল চলে যায় কিপার লিটন দাসের কাছে। স্টাম্পিং করতে সময় নেননি তিনি।

৮ বলে ১২ রান করে ফেরেন হাসান। এর সাথে ৫ উইকেট শিকার করলেন তাইজুল।


আরও পড়ুন