বিনাপ্রতিদ্বন্দ্বিতায় চেয়ারম্যান ৪৮ জন

চলমান ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) নির্বাচনে বিগত তিন ধাপের তুলনায় চতুর্থ ধাপে চেয়ারম্যান পদে বিনাপ্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিতের হার কিছুটা কমেছে। এ ধাপে ৮৪২ ইউপি নির্বাচনে বিনাপ্রতিদ্বন্দ্বিতায় চেয়ারম্যান পদে ৪৮ জন জয়ী হয়েছেন। গতকাল মঙ্গলবার নির্বাচন কমিশন (ইসি) চতুর্থ ধাপের ইউপি নির্বাচনে সারাদেশে মনোনয়নপত্র দেওয়ার সমন্বিত প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে। গত সোমবার ছিল এই ধাপের প্রার্থিতা প্রত্যাহারের শেষদিন। এর আগে প্রথম ধাপে ৭১ জন, দ্বিতীয় ধাপে ৭৭ জন ও তৃতীয় ধাপে ১০০ জন বিনাপ্রতিদ্বন্দ্বিতায় চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন।

চতুর্থ ধাপে ৪৮ জন চেয়ারম্যানসহ ২৯৫ জন জনপ্রতিনিধি বিনাভোটে জয়ী হয়েছেন। তাদের মধ্যে ১১২ জন সংরক্ষিত সদস্য ও ১৩৫ জন সাধারণ সদস্য রয়েছেন। চেয়ারম্যান পদে বিনাপ্রতিদ্বন্দ্বিতায় জয়ীদের একজন বাদে সবাই আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী। এ ধাপের নির্বাচনে চূড়ান্ত প্রতিদ্বন্দ্বিতায় রয়েছেন চেয়ারম্যান পদে তিন হাজার ৮১৪ জন, সংরক্ষিত সদস্য ৯ হাজার ৫১৩ জন ও সাধারণ সদস্য ৩০ হাজার ১০৬ জন। আগামী ২৬ ডিসেম্বর এ ধাপের ইউপি নির্বাচনে ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে।

ইসি জানায়, চতুর্থ ধাপে ৮৪২ ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে গতকাল প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীদের মধ্যে প্রতীক বরাদ্দ দিয়েছেন সংশ্লিষ্ট রিটার্নিং কর্মকর্তারা। এদিন থেকে শুরু হয়েছে আনুষ্ঠানিক প্রচার।

নির্বাচনী আচরণ বিধিমালা দেখভালে মাঠে রয়েছেন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটরা। এ ধাপে চেয়ারম্যান পদে চার হাজার ৭০৮ জন মনোনয়নপত্র দাখিল করেন। তাদের মধ্যে ৭৮১ জন প্রার্থিতা প্রত্যাহার করে নেন। বাকিদের প্রার্থিতা বাছাইয়ে বাতিল হয়। চূড়ান্ত প্রতিদ্বন্দ্বিতায় মাঠে রয়েছেন তিন হাজার ৮১৪ জন (বিনাপ্রতিদ্বন্দ্বিতায় জয়ী ৪৮ জন বাদে)। একইভাবে সংরক্ষিত সদস্য পদে প্রার্থী হয়েছিলেন ৯ হাজার ৮২২জন। প্রার্থিতা প্রত্যাহার করে নিয়েছেন ১৮৭ জন। মাঠে রয়েছেন ৯ হাজার ৫১৩ জন। বাকিদের প্রার্থিতা বাছাইয়ে বাতিল হয়। একইভাবে সাধারণ সদস্য পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতায় আছেন ৩০ হাজার ১০৬ জন। এ পদে মনোনয়নপত্র দাখিল করেন ৩২ হাজার ৪৯৫ জন।


আরও পড়ুন