দূর পরবাস - December 19, 2021

মিসরে আন্তর্জাতিক অভিবাসী দিবস পালন

‘‘শতবর্ষে জাতির পিতা, সুবর্ণে স্বাধীনতা; অভিবাসনে আনবো মর্যাদা ও নৈতিকতা’’ প্রতিপাদ্য সামনে রেখে মিসরের রাজধানী কায়রোস্থ বাংলাদেশ দুতাবাসে স্থানীয় সময় সন্ধ্যা ৭:০০ ঘটিকায় মনিরুজ্জামান এর সঞ্চালনায় পবিত্র কোরআন তেলাওয়াতের মধ্য দিয়ে শুরু হয় অনুষ্ঠান।

ঢাকা থেকে পাঠানো গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মহামান্য রাষ্ট্রপতি, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী, মাননীয় পররাষ্ট্র মন্ত্রী. মাননীয় প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রী প্রদত্ত বাণী পাঠ করেন শুনান যথাক্রমে প্রথম সচিব (শ্রম) মুহাম্মদ ইসমাইল হুসাইন, তৃতীয় সচিব আতাউল হক, ব্যক্তিগত কর্মকর্তা মোঃ রফিকুল ইসলাম এবং অফিস সহকারী মনিরুজ্জামান।

শুরুতেই আন্তর্জাতিক অভিবাসী দিবসের প্রতিপাদ্য বিষয়ের ওপর আলোচনা অনুষ্ঠিত হয়, আলোচনায় অংশগ্রহণ করেন মিসরের বিভিন্ন এলাকা হতে আগত প্রবাসী বাংলাদেশি কর্মীদের মধ্যে হতে জনাব মজিবুর রহমান ইসলাম, জনাব আক্তার হোসাইন এবং জনাব মোঃ খোকন। দিবসটির গুরুত্ব ও তাৎপর্যের ওপর আলোচনা করেন দুতাবাসের শ্রম কল্যাণ উইংয়ের প্রথম সচিব (শ্রম) জনাব মুহাম্মদ ইসমাইল হুসাইন।

প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের সচিব এবং দুর্নীতি দমন কমিশনের সচিব ড. আনোয়ার হোসেন হাওলাদার। সর্বশেষে দিবসটির ওপর গুরুত্বপূর্ণ বক্তব্য রাখেন প্রবাসী কর্মী জনাব মজিবুর রহমান ইসলাম তার বক্তব্যের শুরুতে দূতাবাস কর্তৃক অভিবাসী দিবসের সুন্দর আয়োজনের জন্য মান্যবর রাষ্ট্রদূত এবং শ্রম কল্যাণ উইংকে ধন্যবাদ জানান। মিসর প্রবাসী বাংলাদেশিদের সমস্যার মধ্যে ভিসার মেয়াদ বৃদ্ধিতে অধিক ফী প্রদানসহ জটিলতার বিষয়ে দূতাবাসের কর্মকর্তাদের দৃষ্টি আকর্ষণ করেন।

প্রবাসী কর্মী জনাব আক্তার হোসাইন বলেন, কর্মীদের শ্রমের গুরুত্ব ও দায়িত্ব কর্তব্য বিষয়ে কোরআন হাদিসের আলোকে উল্লেখ করার পাশাপাশি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের দেশপ্রেম এবং সাধারণ মানুষের সাথে কর্মীদের আত্মার সম্পর্ক ছিল উল্লেখ করেন।

প্রথম সচিব (শ্রম) বলেন, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এর জন্মশতবার্ষিকী, বাংলাদেশের স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী, অভিবাসন দিবসের তাৎপর্য অত্যন্ত নিবিড়ভাবে সম্পর্কিত বলে উল্লেখ করেন। মিসর প্রবাসী বাংলাদেশিদের সমস্যা এবং সমাধানের নিমিত্ত শ্রম কল্যাণ উইংয়ের কর্মতৎপরতা এবং ওয়েজ আর্নার্স কল্যাণ বোর্ডের সদস্যপদ বিষয়ক গুরুত্বপূর্ণ তথ্যাদি উপস্থাপন করেন।

প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ড. আনোয়ার হোসেন হাওলাদার বলেন, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জীবন ও কর্ম বাঙ্গালী জাতির জন্য অবিস্মরণীয়। তিনি বাংলাদেশের সকলকে নিষ্টার সাথে কাজ করে বাংলাদেশের অগ্রযাত্রায় শামিল হয়ে ২০৪১ সালে উন্নত বাংলাদেশ গড়ার শপথ নেয়ার আহ্বান জানান।

অনুষ্ঠানটির সমাপনী বক্তব্যে রাষ্ট্রদূত মোহাম্মদ মনিরুল ইসলাম মিসর প্রবাসী সকল বাংলাদেশি কর্মীদের দিবসটি উপলক্ষে অভিনন্দন ও শুভেচ্ছা জানান। রাষ্ট্রদূত বলেন, বাংলাদেশের অর্থনৈতিক সমৃদ্ধিতে প্রবাসী কর্মীদের প্রেরিত রেমিট্যান্স দেশের উন্নয়নে গন্তব্যদেশের উন্নয়নেও তারা গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করছে। বর্তমানে আমাদের মাতৃভূমির উন্নয়নে তিনি সকল প্রবাসী কর্মীদের এগিয়ে আসার আহ্বান জানান। আমাদের কার্য ও আচরনের মাধ্যমে Host Country এর মনোযোগ আকর্ষণ করে বিদ্যমান সমস্যাসমূহ সমাধান করা সম্ভব। উন্নত সমৃদ্ধ ও সুখী বাংলাদেশ গড়ার প্রত্যয়ে বর্তমান সরকারের গৃহীত ভিশন ২০২১ এবং ২০৪১ বাস্তবায়নে তিনি সকল শ্রেণি ও পেশার সহযোগিতা কামনা করেন।

দুতাবাসের অভিবাসী দিবস অনুষ্ঠানটিতে আন্তর্জাতিক দুর্নীতি দমন কমিশনের অতিরিক্ত সচিব, পরিচালক এবং মহাপরিচালক (অডিট) সহ মিসরে অবস্থানকারী বিভিন্ন পেশা ও শ্রেণির প্রবাসী বাংলাদেশিরা উপস্থিত ছিলেন। আলোচনা শেষে সকলের মাঝে বাঙ্গালী ঐতিহ্যে রাতের খাবার পরিবেশন করা হয়।


আরও পড়ুন