পঞ্চম ধাপেও এগিয়ে স্বতন্ত্র, ৩৪১ ইউপিতে নৌকার জয়

পঞ্চম ধাপে ৭০৮টি ইউনিয়ন পরিষদে (ইউপি) বুধবার (৫ জানুয়ারি) ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়। এর মধ্যে ৬৯২ ইউপির চূড়ান্ত ফল জানিয়েছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। ১৩টি ইউপিতে ভোটগ্রহণ স্থগিত করা হয়েছে। আদালতের আদেশে স্থগিত রয়েছে একটি ইউপিতে। আরেকটিতে নির্বাচন বন্ধ ঘোষণা করেছে ইসি। তবে ঘোষিত ফলাফলে এক ইউপির ভোটের তথ্য সম্পর্কে কিছুই জানায়নি কমিশন।

বৃহস্পতিবার (৬ জানুয়ারি) নির্বাচন কমিশনের (ইসি) যুগ্ম-সচিব আসাদুজ্জামান আনুষ্ঠানিকভাবে পঞ্চম ধাপের ইউপি নির্বাচনের ফল ঘোষণা করেন।

ঘোষিত ফলাফলে, ৩৪৬টি ইউপিতে চেয়ারম্যান পদে জয়ী হয়েছেন স্বতন্ত্র প্রার্থী। আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকা প্রতীক নিয়ে নির্বাচন করে জয়ী হয়েছেন ৩৪১ জন চেয়ারম্যান প্রার্থী। এছাড়া জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম মনোনীত দুজন, জাতীয় পার্টির (জাপা) দুজন ও বাংলাদেশ জাতীয় পার্টির একজন প্রার্থী চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন। তবে পঞ্চম ধাপে ভোটগ্রহণের আগেই প্রতিদ্বন্দ্বী না থাকায় ১৯৩ জনকে নির্বাচিত ঘোষণা করা হয়।

জানা গেছে, ৫ জানুয়ারি অনুষ্ঠিত পঞ্চম ধাপের ইউপি নির্বাচনে অংশ নেয় চারটি রাজনৈতিক দলের মনোনীত প্রার্থীরা। তবে আগের ধাপগুলোর মতো পঞ্চম ধাপেও বিএনপি ইউপি নির্বাচন বর্জন করেছেন।

ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থীর চেয়ে চেয়ারম্যান পদে স্বতন্ত্র প্রার্থী বেশি জয়ী হয়েছেন। তবে স্বতন্ত্র প্রার্থীদের অধিকাংশ আওয়ামী লীগেরই বিদ্রোহী প্রার্থী। মনোনয়ন না পেয়ে তারা স্বতন্ত্র প্রার্থী হয়েছেন।

ইসি সূত্রে জানা গেছে, দেশের ৪৮ জেলার ৯৫ উপজেলার ৭০৮টি ইউপিতে ভোটগ্রহণ করা হয়। এর মধ্যে ৪০টি ইউপিতে ইভিএমে ভোটগ্রহণ করা হয়।

ইসির যুগ্ম-সচিব আসাদুজ্জামান বলেন, পঞ্চম ধাপে ৭০৮ ইউপিতে মোট ভোটার ছিলেন এক কোটি ৪২ লাখ ২০ হাজার ১৯৫। বিভিন্ন পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন ৩৬ হাজার ৪৫৭ জন প্রার্থী। এর মধ্যে চেয়ারম্যান পদে তিন হাজার ২৭৪ জন, সংরক্ষিত আসনে সাত হাজার ৯৫০ ও সাধারণ সদস্য পদে ২৫ হাজার ২৩৩ জন প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন।


আরও পড়ুন