ইউক্রেনে রুশ হামলা ‘যে কোনো মুহূর্তে’

যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যান্টনি ব্লিংকেন বলেছেন, রাশিয়ার তরফ থেকে ইউক্রেন এমন হুমকির মধ্যে রয়েছে, যা আগে কখনই ভাবা হয়নি। তিনি আরও বলেন, খুবই অল্প সময়ের মধ্যে রাশিয়া ইউক্রেন আক্রমণ করে বসতে পারে। ইউক্রেনের রাজধানী কিয়েভে গতকাল বুধবার এসব কথা বলেন ব্লিংকেন।

বেশ কিছু দিন থেকেই ইউক্রেন সীমান্তে প্রায় এক লাখ রুশ সেনা মোতায়েন নিয়ে পশ্চিমাদের সঙ্গে রাশিয়ার উত্তেজনা বিরাজ করছে। যুক্তরাষ্ট্র ও তার মিত্র দেশগুলো বলছে, যে কোনো সময় রাশিয়া ইউক্রেন আক্রমণ করতে পারে। ইউক্রেনও একই আশঙ্কা করছে। তবে রাশিয়া বলছে, তাদের সেনা কারও জন্য হুমকি হবে না। এদিকে যুক্তরাষ্ট্র বরাবর প্রতিশ্রুতি দিয়ে আসছে ইউক্রেন আক্রান্ত হলে তারা নিরাপত্তা সহায়তা দেবে। ইতোমধ্যে যুক্তরাষ্ট্র অস্ত্রও পাঠিয়েছে। এ ছাড়া যুক্তরাজ্যও ইউক্রেনে অস্ত্র পাঠিয়েছে। সব মিলিয়ে একটা যুদ্ধ-যুদ্ধ পরিস্থিতি বিরাজ করছে।

এদিকে ইউক্রেনের গোয়েন্দা বাহিনী বলছে, সীমান্তের কাছে আক্রমণ গোছানোর কাজ প্রায় শেষ করেছে রুশ বাহিনী। ওই গোয়েন্দা বাহিনী গতকালই সংক্রান্ত প্রতিবেদন জানিয়েছে। ব্লিংকেনের কথার সুরে ধরে ওই প্রতিবেদনেও বলা হয়, মস্কো যে কোনো সময় ইউক্রেনে হামলা চালাতে পারে।

ইউক্রেনের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের সর্বশেষ গোয়েন্দা পর্যালোচনার বরাত দিয়ে সিএনএনের খবরে বলা হয়েছে, এই অঞ্চলে বর্তমানে লক্ষাধিক সেনা মোতায়েন রেখেছে মস্কো। এর মধ্যে সেনাসদস্যের সংখ্যা এক লাখ ছয় হাজারেরও বেশি। নৌ ও বিমানবাহিনীর সদস্যদের মিলিয়ে এ সংখ্যা এক লাখ ২৭ হাজারেরও বেশি। ওই গোয়েন্দা পর্যালোচনায় বিদ্যমান পরিস্থিতিকে ‘কঠিন’ হিসেবে আখ্যায়িত করা হয়েছে। এতে বলা হয়েছে- ইউক্রেন বিশ্বাস করে রাশিয়া ইউরোপিয়ান ইউনিয়ন এবং ন্যাটোকে বিভক্ত ও দুর্বল করার চেষ্টা করছে।


আরও পড়ুন