চেয়ারম্যান-মেম্বারদের বিরোধ মিটালো এমপি

কিশোরগঞ্জের কটিয়াদী উপজেলার জালালপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ও মেম্বারদের মধ্যে সৃষ্ট বিরোধের নিষ্পত্তি হয়েছে। শনিবার (১৯ নভেম্বর) ইউনিয়ন পরিষদ প্রাঙ্গণে স্থানীয় সংসদ সদস্য নূর মোহাম্মদ এমপি’র উপস্থিতিতে বিরোধের নিষ্পত্তি হয়।

এর আগে গত রোববার ইউপি চেয়ারম্যান রফিকুল আলম রফিকের বিরুদ্ধে অনিয়ম, দুর্নীতির অভিযোগ এনে পরিষদের আটজন মেম্বার একাট্টা হয়ে উপজলা নির্বাহী কর্মকর্তার কাছে লিখিত অভিযোগ করেন। এরপর থেকে পরিষদের কার্যক্রমে সৃষ্টি হয় স্থবিরতা। এলাকায় ফিরে অস্বস্তি, তৈরি হয় জনদূর্ভোগ।

বিষয়টি জানার পর শনিবার জালালপুর ইউনিয়ন পরিষদ প্রাঙ্গণে উভয় পক্ষকে নিয়ে বসেন সংসদ সদস্য নূর মোহাম্মদ। এসময় এলাকার উন্নয়নে দুর্নীতি ও অসৎ কাজে জড়িত না থেকে সুন্দর সমাজ গড়ার লক্ষ্যে মিলে মিশে হাতে হাত রেখে কাজ করার আহবান জানান তিনি।

আরও পড়ুন : নেইমারের প্রিয় বন্ধু কিশোরগঞ্জের রবিন

তখন সংসদ সদস্যের আহবানে সাড়া দিয়ে এলাকার উন্নয়নে মিলে মিশে কাজ করার প্রতিজ্ঞা করেন ইউপি চেয়ারম্যান ও সদস্যগণ।

এসময় কটিয়াদী উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ডা. মোহাম্মদ মুশতাকুর রহমান, উপজলা নির্বাহী কর্মকর্তা খানজাদা শাহরিয়ার বিন মান্নান, কটিয়াদী মডেল থানার ওসি এসএম শাহাদত হোসেন, জালালপুর ইউপির সাবেক চেয়ারম্যান মুর্শিদ উদ্দিন মাষ্টার, উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান রেজাউল করিম শিকদার, জালালপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি আব্দুল খালেক সরকার রাজু প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

আরও পড়ুন : কমিটি গঠন ছাড়াই শেষ বাজিতপুর উপজেলা যুবলীগের সম্মেলন

কটিয়াদী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা খানজাদা শাহরিয়ার বিন মান্নান বলেন, সমঝোতা হওয়া ভালো। তবে আর্থিক অনিয়ম ও দুর্নীতির বিযয়ে কোন প্রকার ছাড় দেয়া হবে না। অনুসন্ধানে তা প্রমাণিত হলে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

কিশোরগঞ্জ-২ (কটিয়াদী-পাকুন্দিয়া) আসনের সংসদ সদস্য নূর মোহাম্মদ বলেন, বিরোধ নয়, আমার নির্বাচনী এলাকায় মানুষের মাঝে সম্প্রীতি ও শান্তি প্রতিষ্ঠা করতে চাই। এলাকার উন্নয়নে, জনগণের কল্যাণে নিজ নিজ অবস্থান থেকে সবাইকে কাজ করে যেতে হবে।


আরও পড়ুন