স্ত্রীর বিরুদ্ধে আরজে কিবরিয়ার জিডি

কক্সবাজারে ঘুরতে গিয়ে স্ত্রীর হাতে পিটুনি খেয়েছেন সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে পরিচিত মুখ আরজে কিবরিয়া। এই অভিযোগ জানিয়ে স্ত্রী রাফিয়া লোরার বিরুদ্ধে থানায় সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেছেন তিনি।

আজ বৃহস্পতিবার বিকেলে কক্সবাজার মডেল থানায় মারধরের জিডি করেন কিবরিয়া। এরপর এ বিষয়ে ফেসবুকে দীর্ঘ স্ট্যাটাস দেন আরজে কিবরিয়া।

কিবরিয়া বলেন, ‘প্রিয় পরিচিত জন, আমার জ্ঞানত আমি কোনোদিন আমার পারিবারিক বিষয় নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়াতে আলোচনা-সমালোচনা হয় এমন বিষয় নিয়ে কথা বলিনি। আমি বলতেও চাই না যতক্ষণ পর্যন্ত সে আমার স্ত্রী। আমি কমবেশি সোশ্যাল মিডিয়ার নেগেটিভিটি ফেস করা মানুষ। আমি জানি একটা সংবাদ যাচাই-বাছাই না করে অনলাইনে ছাড়া যায়। ঘটনা পুরাই উল্টে দেওয়া যায়। কাউকে নিয়ে পাবলিকলি বাজে কথা বলার আমি পক্ষে না। আমি জানি আমার চির শত্রু বলে যদি কেউ থেকে থাকে তো সে প্রথম এবং একমাত্র টার্গেট করবে আমার চরিত্র এবং পাবলিক ইমেজ। আমি সেটাতে বিন্দুমাত্র ভয় পাই না।’

তিনি আরও বলেন, ‘আমি ক্ষমা করতে ভালোবাসি। আমার সন্তানদের ক্ষতি যেমন আমি কোনোদিন মেনে নেব না, ঠিক একইভাবে আপনাদের এই ভুল ভাল নিউজ তাদের ফিউচারের জন্য ক্ষতি হোক সেটাও আমি চাই না। প্লিজ। আমি আমার কাছে সৎ এবং কারও প্রতি কোনো অন্যায় করিনি। যারা আমাকে ভালোবাসেন তারা আস্থা রাখুন। দোয়া করবেন।’

এ বিষয়ে কক্সবাজার সদর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রফিকুল ইসলাম বলেন, কক্সবাজার পর্যটন এলাকার হোটেল সাইমনের ১০২ নম্বর কক্ষে স্ত্রী-সন্তানদের নিয়ে ওঠেন আরজে কিবরিয়া। আজ দুপুরের রাফিয়া লোরা সন্তানকে মারধর করেন। এ সময় আরজে কিবরিয়া বাধা দিতে গেলে তাকেও মারধর করেন স্ত্রী। পরে ৯৯৯ নম্বরে ফোন করে পুলিশের সহযোগিতা চাওয়া হয়।

ওসি আরও জানান, খবর পেয়ে তাকে উদ্ধার করে পুলিশ। পরে আরজে কিবরিয়া বাদী হয়ে স্ত্রী রাফিয়া লোরার বিরুদ্ধে থানায় একটি জিডি করেন।

দীর্ঘদিন ধরে আরজে কিবরিয়া ও রাফিয়া লোরার মধ্যে পারিবারিক কলহের সূত্র ধরেই এমন ঘটনা ঘটেছে বলে জানান ওসি।


আরও পড়ুন