কুপ্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় পুড়িয়ে হত্যাচেষ্টা, ‘৯৯৯’ কল করে রক্ষা

কিশোরগঞ্জের কুলিয়ারচরে কুপ্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় এক গৃহবধূকে পুড়িয়ে হত্যাচেষ্টার অভিযোগ উঠেছে। রোববার (২২ জানুয়ারি) রাতে উপজেলার গোবরিয়া-আব্দুল্লাহপুর ইউনিয়নের বড়চারা কুড়েরপাড় গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

অভিযুক্ত বায়েজিদ ওই এলাকার নুর ইসলামের ছেলে।

অগ্নিদগ্ধ ওই নারী (২০) জানান, উপজেলার গোবরিয়া আব্দুল্লাহপুর ইউনিয়নের বরচারা গ্রামে ৬/৭ মাস পূর্বে তাঁর বিবাহ হয়। বিয়ের পর থেকেই তাকে বিরক্ত করতে থাকে শ্বশুরবাড়ির পার্শ্ববর্তী বাড়ির নুর ইসলামের ছেলে বায়েজিদ (২৩)। বায়েজিদ তাকে বিভিন্ন সময় কুপ্রস্তাবের প্রস্তাব দিত। একপর্যায়ে বিরক্ত হয়ে ঘটনাটি শ্বশুরকে জানালে একদিন বাড়ির আঙিনায় অভিযুক্ত বায়েজিদ মোবাইল ফোনে কল দিতে থাকলে শ্বশুর তাকে ধরে উত্তমমধ্যম দেন। এরপর থেকে সে বিভিন্নভাবে হুমকি দিত।

সবশেষ রোববার (২২ ফেব্রুয়ারি) রাতে প্রকৃতির ডাকে সাড়া দিয়ে ঘরে ফেরার সময় ওত পেতে থাকা বায়েজিদ ও তার এক সহযোগী পেছন থেকে ওই গৃহবধূকে চেপে ধরে। এ সময় তারা গৃহবধূর শরীরে কেরোসিন ঢেলে আগুন ধরিয়ে দেয়।

এ বিষয়ে কুলিয়ারচর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ গোলাম মোস্তফা জানান, এ ঘটনায় ওই নারীর পরিবারের পক্ষ থেকে এখন পর্যন্ত কোনো অভিযোগ দেয়া হয়নি। ৯৯৯-এ কল পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে ওই নারীকে উদ্ধার করে হাসপাতালে পাঠানো হয়। এ ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য অভিযুক্ত বায়েজিদের বাবা নুর ইসলামকে থানায় নেয়া হয়েছে।


আরও পড়ুন