কিশোরগঞ্জের স্কুল শিক্ষিকা আতিয়া জাহান মৌ’কে ধর্ষন ও হত্যায় জড়িতদের গ্রেফতারের দাবিতে অবরোধ কর্মসূচি

মিঠামইন প্রতিনিধি,

 

কিশোরগঞ্জে স্কুল শিক্ষিকা আতিয়া জাহান মৌ’কে ধর্ষন ও হত্যায় জড়িতদের দ্রুত গ্রেফতার ও শাস্তির দাবিতে শিক্ষার্থীরা সড়ক অবরোধ কর্মসূচী পালন করেছে।

নিহতের স্বজন, কলেজ শিক্ষার্থী ও স্থানীয় এলাকাবাসীর উদ্যোগে রবিবার সাড়ে ১১ টায় শহরের কালীবাড়ি মোড় এলাকায় অবরোধ কর্মসূচি শুরু হয়। ঘন্টাব্যাপী অবরোধ চলাকালীন সময়ে শহরের প্রচুর যানজটের সৃষ্টি হয়। এসময় পুলিশ অবরোধ কর্মসূচীতে বাধা দিলে শিক্ষার্থীদের সাথে পুলিশের তর্ক-বিতর্ক হয়। এসময় শিক্ষার্থীরা মৌ হত্যার বিচারের দাবিতে বিভিন্ন শ্লোগান দিতে থাকে। অবরোধকারীরা প্রশাসনের নিকট শিক্ষিকা মৌ হত্যার জড়িতদের দ্রুত গ্রেফতার করে শাস্তির দাবি জানান। এছাড়া আসামীরা প্রকাশ্যে চলাফেরা করছে এবং নিহতে মৌয়ের পরিবারের সদস্যদেরকে নানাভাবে ভয়-ভীতি দেখাচ্ছে বলে বক্তৃতায় স্বজনরা অভিযোগ করেছেন। পরে পুলিশের বাধার মুখে তারা অবরোধ কর্মসূচী ভেঙ্গে দেয়।
kishoreganj-road-block-by-student-picture-3-04-12-16
উল্লেখ্য, মিঠামইন উপজেলার গোপদীঘি গ্রামের সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষিকা আতিয়া জাহান মৌকে (২৪) ২০১৫ সনের ৬ নভেম্বর রাতে কয়েকজন দুর্বৃত্ত কিশোরগঞ্জ শহরের বত্রিশ এলাকার বাসায় একা পেয়ে পাষবিক নির্যাতন শেষে হত্যা করে। এ ঘটনায় নিহতের মা রওশন আরা কবিতা বাদী হয়ে বত্রিশ এলাকার টিটু ও রাজিব এবং গোপদীঘি গ্রামের রিফাত নামে তিন যুবককে আসামী করে ধর্ষন ও হত্যার অভিযোগে সদর থানায় একটি মামলা করেন। আসামীদের মধ্যে রিফাত আদালতে আত্মসমর্পন করে কিছুদিন পর  মুক্তি পায় এবং বাকি দুই আসামীকে পুলিশ এখনো আটক করতে পারেনি।

 

 

মুক্তিযোদ্ধার কণ্ঠ ডটকম/    ০৪- ১২-২০১৬ ইং / মো: হাছিব


আরও পড়ুন

২ Comments

  1. An interesting discussion will probably be worth comment. There’s no doubt that that you need to write on this topic, it might not often be a taboo subject but typically everyone is inadequate to communicate on such topics. To another location. Cheers

  2. I just want to say I am just beginner to blogging and really savored this blog site. Most likely I’m going to bookmark your blog post . You really come with tremendous writings. Many thanks for sharing your website.

Comments are closed.