স্রষ্টার নেয়ামতে মাতৃভূ‌মি ।। রহমান মাসুদ

সাহিত্য ও সংস্কৃতি ।।

স্রষ্টার নেয়ামতে মাতৃভূ‌মি

রহমান মাসুদ
আল্লাহর কুদর‌তের সু‌নিপুন ছোঁয়ায় আছি সু‌খে
আমা‌দের প্রিয় মাতৃভূ‌মি বাংলা‌দে‌শের বু‌কে,
সৃষ্টার নেয়াম‌তে পূর্ণ জন্মভূ‌মিকে ঘি‌রেই প্রত্যাশা
হে মা,হে প্রিয় বাংলা ,তু‌মিই হৃদ‌য়ের ভালবাসা,
আশ্চর্য রূ‌পের দর্শ‌নে অবিভূত কত কলম সৈ‌নিক
সু‌নিপুন লিখনীর ছোঁয়ার অবকা‌শে কত জ‌রিপ,
তবুও অতৃপ্ত,তবুও অভুক্ত পিপাসায় তৃ‌ষ্ণিত হৃদয়
নেশা জাগা‌নো সৌন্দ‌‌র্য্যের মহামায়ায়,তু‌মি বিস্ময়।
নদীমাতৃক তোমার বু‌কে বিশাল জলধারা
প্রবা‌হিত পদ্না মেঘনা যমুনা ব্রহ্মপুত্র সুরমা,
বর্ষায় যৌব‌নের উন্মুক্ততায় উত্তাল খর‌স্রোতা
নদী নালা হাওর খাল বিল মহামিল‌নে একাত্নতা।
জী‌বিকার তাড়নায় জে‌লেদের জীব‌নে ব্যস্ততা
জা‌লে রুপালি ইলিশ র‌বির কির‌ণে অপূর্ব ছটা,
পাল তোলা কারুকা‌র্যিত বহমান নৌকার বহর
অবগুন্ঠ‌নে গ্রাম্য বধু‌র পিত্রাল‌য়ে সু‌খের না‌ইয়োর।
নদীর ত‌টে কচুরীর দা‌মে পান‌কৌড়‌‌ির ঝাঁক
মা‌ছে‌র সন্ধা‌নে পে‌তে‌ছে ফাঁদ হ‌য়ে নিশ্চুপ নির্বাক,
হেম‌ন্তে তর‌ঙ্গিনীর শাখা প্রশাখায় সং‌কোচন
বালুচ‌রে স‌মীর‌নে ক‌ম্পিত অপরূপ শুভ্র কাশবন।
শীতকা‌লে সৌম্য শান্ত সরলতার মি‌ষ্টি ব্যবহার
ঢেউকে পা‌রি‌য়ে গাঢ় ঘুম গা‌য়ে চাদর নিস্তব্ধতার,
ঋতু‌তে ঋতু‌তে প‌রিবর্তন দে‌হের স‌ঞ্চিত জলাধার
কৃ‌ষি প্রধান বাংলা মা‌য়ের ফসল ফল‌নে উপকার।
সোনার বাংলা সোনার ফসল কৃষ‌কের ম‌নোবল
একাধিক ফসল পে‌তে মা‌টিতে লাঙ্গ‌লের আঁচড়,
ফস‌লের পাঁকা ঘ্রাণ ও নয়নকারা রূ‌পের আবেশ
সূর্যোদয় সূর্যাস্তে সৃ‌ষ্টি অদ্ভুত সুন্দ‌র্য্যময় প‌রি‌বেশ।
বিধাতার তু‌লি‌তে আঁকা অজস্র রং‌ এর বিন্যাস
তোমার রূ‌পের স্ত‌তি‌তে সৃ‌ষ্টি মহাকা‌ব্যিক উপন্যাস।
কোথাও সবুজ কোথাও হলুদ বা লা‌লের র‌ক্তিমতা
এ‌তো নয় পৃ‌থিবীর আবাস যেন স্ব‌র্গেরই প্রাপ্যতা।
গা‌ছে গা‌ছে থোকা থোকা কত ফুল ফ‌লের সমাহার
ম‌নের সু‌খে পশু পা‌খী ক‌ীট পতঙ্গ মান‌বের আহার,
ষড়ঋতু‌তে সা‌জি‌য়েছ ষড় ব্যন্ঞ্জ‌নের নানা ভোজন
প্রকৃ‌তি‌র উদার হ‌স্তে দান তারই কত উপকরন।
দো‌য়েল কো‌য়েল ময়না কো‌কিলের ক‌ন্ঠের গানে
জোনা‌কিরা নিস্তব্ধ রা‌তের প্রহ‌রী ঘু‌রে আনম‌নে,
পেচার সা‌থে নি‌শুতি রা‌তে বাদ‌ুর পে‌তে‌ছে সই
দুষ্ট চাম‌চি‌কে সা‌ক্ষী হ‌য়ে মহা উল্লা‌সে ক‌রে হইচই।
পূর্ব-দ‌ক্ষি‌নে মা‌কে আলিঙ্গনে আবদ্ধ সাগর
কক্সবাজা‌রে অবস্হান বি‌শ্বের দীর্ঘ সমুদ্র সৈকত,
নোনা জ‌লের ছোঁয়ায় সাগ‌রের তরঙ্গমালার গর্জন
কুয়াকাটায় সূর্যোদ‌য় ও সূর্যা‌স্ত ঘ‌টে নয়‌নে দর্শন,
প্রবা‌লের সমা‌ধি‌তে জাগ্রত মনমুগ্ধকর প্রবাল দ্বীপ
সেন্ট মার্টি‌নের রূ‌পের বাহা‌রে বিমো‌হিত প‌থিক।
সুন্দরব‌নে গোলপাতা,সুন্দরী,‌কেওরা তরুর মিলন
র‌য়েল বেঙ্গল টাইগা‌রের অপূর্ব রাজ‌সিক‌ পদচারন।
পার্বত্য অন্ঞ্চ‌লে দন্ডায়মান উঁচু নিচু পাহা‌ড়ের সারি
মে‌ঘের রা‌জ্যের হাতছা‌নি সেতো কা‌ঙ্খিত স্বপ্নপুরী।
পাহা‌ড় ছে‌ড়ে সমত‌লের টা‌নে জলধারার আত্নহু‌তি
ঝর্ণা ধারার পতন ভ‌য়ের আত‌ঙ্কে শব্দমালার স্তু‌তি,
ছোট ছোট টিলার মা‌ঝে চমৎকার বাগা‌নের শোভা
চা গা‌ছের দু’‌টি কুড়ি আহরণ দৃশ্য কি‌ যে অপরূপা,
নদীর স্বচ্ছ নীল জলে ভে‌সে আসা ছোট বড় কঙ্কর
জাফলং‌ এর বুক‌ে পাথ‌রের প্রবাহ বড়ই ম‌নোরম।
কি‌যে অপূর্ব তোমার অবয়ব অতিশয় দী‌প্তির ছটা
ম‌োহ জাগা‌নো তৃ‌প্তির মো‌হে নয়‌নে সে সুধা লুটা।
ঋতু প‌রিবর্ত‌নে ক্ষ‌ণেক্ষ‌ণে বদল রূ‌পের খোলস
সম্ভাষ‌ণে ডা‌কো প্রকৃ‌তি‌কে‌ হ‌তে তোমার হা‌তে বশ।
তোমার বু‌কে শু‌য়ে আছে অগ‌নিত আল্লাহর ওলী
যা‌দের প্রদ‌র্শিত সত্য ধ‌র্মের আলো‌কে পথ চ‌লি,
বিশাল মুস‌লিম জন‌গো‌ষ্টির তোমার বু‌কে আবাদ
সাম্য,শা‌ন্তির ম‌ন্ত্রে নেই সাম্প্রদা‌য়িকতার বিবাদ।
মস‌জিদ মস‌জি‌দে ছেঁ‌য়ে আছে প্র‌তি‌টি প্রান্তর
আজা‌নের সুমধুর স্বর্গীয় ধ্ব‌ণি‌তে বাত‌াস বি‌ভোর,
বিশ্ব এজ‌তেমার আয়োজ‌নে তু‌মি প্রাণ চঞ্চল
ঈমানী চেতনায় বলীয়ান ধর্মপ্রাণ মানু‌ষের ঢল।
রমজান,ঈদ, কোরবানী সহ সকল ধর্মীয় অনুষ্ঠান
চির ভ্রাতৃ‌ত্বের মিলন মেলায় সবার নি‌বে‌দিত প্রাণ।
সদ‌া আল্লাহর নৈকট্য লাভ‌ে প্রফুল্ল চি‌ত্রে এবাদত
বাংলা‌দে‌শের মা‌টি‌কে হানাহা‌নি মুক্ত রাখার শপত।
নাতিশী‌তোষ্ণ ভাবাপন্ন ম‌নোভা‌বে করো বিচরন
বু‌কে আদ‌রের আশ্রিত‌দের না হ‌তে ক‌ষ্টের কারন,
কল্যাণকা‌রী ভূমিমাতা‌ সকল প্রা‌ণের অতি আপন
সে আশ্বা‌সে প্রিয়ার ব‌ক্ষে অগ‌নিত লোক সমাগম।
হে অতুলনীয় অদ্ভুত ঐশ্ব‌র্যের ম‌হিষী মহা ভাস্বর
প্রা‌ণের অফুরন্ত প্রেরনায় দু’‌টি লোচ‌নে অবিনস্বর।
এই সুন্দর রূ‌পের অবগহ‌নে  প্র‌তি‌টি অঙ্গ বি‌ভোর
তু‌মিই সেরা তু‌মিই শ্রেষ্ঠ তু‌মিই বাঙা‌লির জঠর,
গাঢ় কৃষ্ণব‌র্ণের তিলক‌ অঙ্কিত ক‌রি তব ললাটে
লাগ‌তে পা‌রে রূ‌পের নজর কথাটা স‌ত্য অকপ‌টে।
বিধাতা প্রদত্ত নয়নকারা প‌লি মা‌টির উর্বর ভূ‌মি
ষোল কো‌টি মেহেন‌তি জনগ‌নের প্রাণ‌প্রিয় তু‌মি।
এই রূপ,এই সুধা,এই মধু সবই আল্লাহর দান
তোমার বু‌কে জ‌ন্মে নি‌জে‌কে ভা‌বি সৌভাগ্যবান,
র‌বে কা‌ছে দু’হাত তু‌লে সর্বদা অন্তর খু‌লে ফ‌রিয়াদ
বাংলার মা‌টি‌তে বিরাজ করে যেন শা‌ন্তির স্বাদ,
সকল প্রাকৃ‌তিক বালা-ম‌সিবত মহামা‌রি দূর্যোগ
দে‌শের সিমানায় আসে না যেন কোন বিপদ আপদ,
মানুষ প্রদত্ত সকল অন্যায়,অবিচার,নারী নির্যাতন
দূর ক‌রে কাটা‌তে পা‌রি যেন সুখ সাচ্ছ‌ন্দের জীবন।
আমরা মা‌টি হ‌তে সৃ‌ষ্টি,মা‌টির প্র‌তি চাই ভালবাসা
জন্মভূ‌মির গুণগান সে‌তো প্রকাশ স্রষ্টার শ্রেষ্ঠততা।
হে মা‌টি মৃত্যুর প‌রে দেহের আশ্রয় তব গহীন ঘ‌রে
স্ব‌র্গের বিছানো রে‌খো পে‌তে সন্তা‌নের তৃ‌প্তির ত‌রে।

আরও পড়ুন