কিশোরগঞ্জে বাস-পিকআপ সংঘর্ষ : নিহত ১, আহত ১৭

কিশোরগঞ্জের পাকুন্দিয়ায় বাসের সাথে পিকআপ ভ্যানের মুখোমুখি সংঘর্ষে ১ জন নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় আরো অন্তত ১৭ জন আহত হয়েছেন। বৃহস্পতিবার (২১ জুন) সকালে উপজেলার মরুরা নামক স্থানে এ সড়ক দুর্ঘটনাটি ঘটে। নিহত ও আহতরা সকলেই পিকআপের যাত্রী বলে জানা গেছে।

নিহত জরিনা (৪৫) পাশ্ববর্তী হোসেনপুর উপজেলার গোবিন্দপুর গ্রামের আবদুল ছাত্তারের স্ত্রী। আহতরা হলেন- হোসেনপুর উপজেলার গোবিন্দপুর গ্রামের আ. সাত্তার (৫৫), জুলহাস (৩০), আলমগীর (৩৫), পিংকি (২৮), রিয়াত (৭), খাজিদা (২২), মরিয়ম (২২), শিখা (২৫), শাপলা (২৬), সীমা (৩২) ও জাহাঙ্গীরপুর গ্রামের রিপা (২৫), জাহাঙ্গীর (৩০), মনিরা (২২) এবং ময়মনসিংহ জেলার নান্দাইল উপজেলার কাইয়ূম (৩০), সিয়াম (৩), ফারুক (৩০) ও গাজীপুর জেলার রাজেন্দ্রপুরের খোকন (৩০)।

স্হানীয় ও পুলিশ সূত্র জানায়, সকালে কিশোরগঞ্জ-পাকুন্দিয়া-ঢাকা আঞ্চলিক মহাসড়কে উপজেলার মরুরা ইক্ষু সেন্টার নামক স্থানে ঢাকা থেকে ছেড়ে আসা কিশোরগঞ্জগামী যাত্রীবাহী অন্যন্যা পরিবহনের (ঢাকা-মেট্টো-ব-১৪-৪৫৬৫) বাসের সাথে বিপরীত দিক থেকে আসা ঢাকাগামী যাত্রীবাহী পিকআপের (ঢাকা-মেট্টো-ন-১৭-৬৯৫১) সংর্ঘষ হয়। এতে ঘটনাস্থলেই পিকআপ ভ্যানের যাত্রী জরিনা খাতুনের মারা যান। এছাড়াও এ ঘটনায় ওই পিকআপের অন্তত ১৭ জন যাত্রী আহত হয়েছেন।

পরে স্থানীয়রা ঘটনাস্থল থেকে আহতদের উদ্ধার করে পাকুন্দিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ও কিশোরগঞ্জ ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে ভর্তি করে। ঘটনার পরপরই জনতা অন্যন্যা পরিবহনের বাসটিতে ভাংচুর করেন। এসময় সড়কে যানবাহন চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছে পুলিশ বাসটিকে জব্দ করে এবং যাত্রীদের মালামাল উদ্ধার করে যান চলাচল স্বাভাবিক করেন।

এ ব্যাপারে ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে পাকুন্দিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আজহারুল ইসলাম সরকার মুক্তিযোদ্ধার কণ্ঠকে জানান, নিহতের মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠানো হচ্ছে। এ বিষয়ে প্রয়োজনীয় আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে।


আরও পড়ুন