বিনোদন - July 26, 2018

দিলদার স্মরণে হিরো আলম, ঈদে আসছে ‘হাবা আব্দুল্লাহ’

বাংলা চলচ্চিত্রের কিংবদন্তী কৌতুক অভিনেতা দিলদারের স্মৃতি দর্শকদের মনে করিয়ে দিতে আসছে ঈদে চমক দিতে যাচ্ছেন হিরো আলম খ্যাত আশরাফুল আলম। ইউটিউবে একটি সিনেমার ট্রেইলার প্রচার করা হচ্ছে ব্যাপকভাবে। হিরো আলম রয়েছেন জনপ্রিয় কিংবদন্তী অভিনেতা দিলদারের চরিত্রে।

সিনেমার ট্রেইলারটি ভাইরাল হয়েছে। দিলদারের দর্শক মাতানো ‘আব্দুল্লাহ’ সিনেমার গল্প নিয়ে ‘হাবা আব্দুল্লাহ’ নামে সিনেমার সুটিং কাজে ব্যস্ত সময় কাটাচ্ছেন হিরো আলম। সকাল সন্ধ্যা ক্যাবল নেটওয়ার্কের আদলে এই সিনেমার পরিচালক মশিকুল ইসলাম। হিরো আলমের নায়িকার চরিত্রে রয়েছেন মডেল স্মৃতি। সুটিং চলছে বগুড়ার ধুনট উপজেলার গোসাইবাড়ী ও ভান্ডারবাড়ী এলাকায়।

অন্যান্য চরিত্রে রয়েছেন সাগর, মেহেদী, ইনসান আলী, মজনু এবং পরান। আসছে পবিত্র ঈদ-উল-আজহার ঈদে মুক্তি পাবে সিনেমাটি।

সাংবাদিক নজরুল ইসলামের সাথে আলাপকালে হিরো আলম বলেন, জনপ্রিয় কিংবদন্তী অভিনেতা দিলদারের স্মৃতি স্মরণে ‘আব্দুল্লাহ’ সিনেমার গল্প নিয়ে ‘হাবা আব্দুল্লাহ’ সিনেমার কাজ চলছে। ইতিমধ্যে ইউটিউবে সিনেমার ট্রেইলার এবং গান প্রকাশ হয়েছে। দর্শকদের ব্যাপক সাড়া পাচ্ছি।

সূত্র মতে, চলচ্চিত্রের পর্দায় দুঃখ ভুলানো মানুষ ছিলেন দিলদার। ছবি দেখতে দেখতে কষ্ট-বেদনা বা ক্লান্তিতে মন যখন আচ্ছন্ন হয়ে যেতো তখনই তিনি হাজির হতেন হাসির ফোয়ারা ছড়িয়ে, পেটে খিল ধরিয়ে। কিংবদন্তী কৌতুক অভিনেতা দিলদারের মৃত্যুর পর এই অভিনেতাকে আজও মিস করেন বাংলা ছবির দর্শকেরা। ২০০৩ সালের ১৩ জুলাই তিনি শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন। দর্শকরা তাকে নিয়ে আফসোস করেন। ৫৮ বছর বয়সে দিলদারের চলে যাওয়ায় বাংলা ছবিতে যে অপূরণীয় ক্ষতি হয়েছে, সেটা টের পাচ্ছেন চলচ্চিত্রের মানুষরা। দিলদারের মৃত্যুর এতগুলো বছর পরও তিনি তুমুল জনপ্রিয়। এই অভিনেতা জীবনের শেষ দিন পর্যন্ত চলচ্চিত্রের জন্য কাজ করেছেন। শুধু তাই নয়, তার অভিনীত চলচ্চিত্রের কাহিনীতে কিংবা নায়ক-নায়িকার অভিনয় দক্ষতায় ঘাটতি থাকলেও দর্শক সেটি দেখতে এতটুকু বিরক্ত হননি। এমনকি অনেক চলচ্চিত্রের শেষ দৃশ্যে তার সংলাপ দিয়েই কাহিনীর শেষ হওয়াটা স্বাভাবিক ব্যাপারে পরিণত হয়েছিল। আশি-নব্বই দশকের চলচ্চিত্রে তিনি আর কৌতুক হয়ে ওঠেছিলো সমার্থক। একটা সময় ছিলো যখন, কেউ কাউকে হাসালেই তাকে ‘দিলদার’ উপাধি দেয়া হতো। বলা চলে প্রবাদে পরিণত হয়েছিলেন এই অভিনেতা। ১৯৪৫ সালের ১৩ জানুয়ারি চাঁদপুরে জন্মগ্রহণ করেন দিলদার। তিনি এসএসসি পাশ করার পর পড়াশোনার ইতি টানেন। ১৯৭২ সালে ‘কেন এমন হয়’ নামের চলচ্চিত্র দিয়ে অভিনয় জীবন শুরু করেন দিলদার। আর পেছনে ফিরে তাকাননি তিনি। অভিনয় করেছেন ‘বেদের মেয়ে জোসনা’ ‘বিক্ষোভ’, ‘অন্তরে অন্তরে’, ‘কন্যাদান’, ‘চাওয়া থেকে পাওয়া’, ‘সুন্দর আলীর জীবন সংসার’, ‘স্বপ্নের নায়ক’, ‘আনন্দ অশ্রু’, ‘শান্ত কেন মাস্তান’সহ অসংখ্য জনপ্রিয় সব চলচ্চিত্রে। দিলদারের জনপ্রিয়তা এতটাই তুঙ্গে ছিল যে, তাকে নায়ক করে নির্মাণ করা হয়েছিল ‘আব্দুল্লাহ’ নামে একটি চলচ্চিত্র।

নূতনের বিপরীতে এই ছবিতে বাজিমাত করেছিলেন তিনি। দারুণ জনপ্রিয়তা পেয়েছিলো ছবিতে ঠাঁই পাওয়া গানগুলো। সেই গানগুলো নিয়েই দর্শকদের সামনে হাজির হতে যাচ্ছেন ভাইরাল হিরো আলম।

 


আরও পড়ুন

৩ Comments

  1. I was roaming Google for some cool music and videos of my favorite artists and I ran across your cool website, most in the time when I visit blogs I am searching for anything particular and I leave instantly right after. But with your circumstance the info you’re giving in this submit produced me would like to reply and show my appreciated, so I’ve bookmarked you blog as perfectly. Maintain posting and thank you! =)

  2. I just want to mention I’m new to blogs and actually enjoyed you’re website. More than likely I’m likely to bookmark your blog post . You actually have great articles and reviews. Thanks for sharing with us your web page.

Comments are closed.