দেশের খবর - July 29, 2018

ফুলপুরে খাদ্যে ভেজাল ও বিষমুক্ত খাবার বিষয়ে সচেতনতামূলক

সাংবাদিকতার পাশাপাশি খাদ্যে ভেজাল ও বিষমুক্ত খাবার বিষয়ে আন্দোলন করে সকল মহলের দৃষ্টি আকর্ষণ করা বিশিষ্ট সমাজকর্মী নেয়ামুল কবীর সজল এবার ময়মনসিংহের ফুলপুরে মহিলা ডিগ্রি কলেজে শিক্ষার্থীদের নিয়ে খাদ্যে ভেজালবিরোধী এক ব্যতিক্রমী অনুষ্ঠানের আয়োজন করে ছাত্রছাত্রীদের মাঝে ব্যাপক সাড়া ফেলেছেন। শনিবার খাদ্যে বিষ এবং ভেজালবিরোধী সামাজিক সচেতনতামূলক কর্মসূচীর সমন্বয়কারী সজল ছাত্রছাত্রীদের মাঝে বিষয়টি নিয়ে আলোচনাসহ লিফলেট বিতরণ করেন।

ফুলপুর মহিলা ডিগ্রী কলেজে অনুষ্ঠিত এ অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন ফুলপুর উপজেলার জনবান্ধব ইউএনও জনাব রাশেদ হোসেন চৌধুরী।অতিথি হিসাবে ছিলেন কলেজের অধ্যক্ষা মিসেস রৌশন আরা বেগম। কলেজের বাংলা বিভাগের প্রফেসর জনাব হাফিজুর রহমান, বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ এম এ বারী, কালের কন্ঠের ফটোসাংবাদিক সেলিম রেজা, সাংবাদিক মোস্তফা খানসহ প্রমুখ। অনুষ্ঠানের শুরুতেই বক্তব্য রাখেন, সাংবাদিক নিয়ামুল কবীর সজল খাদ্যে বিষ এবং ভেজাল বিষয়ের উপর গুরুত্বপূর্ণ বক্তব্য রাখেন তিনি। বিভিন্ন ধরণের রোগজীবাণু একমাত্র খাদ্যে ভেজালের ফলে হয়।

তিনি বলেন, আমাদের খাবার হোটেলের নোংরা পরিবেশ এবং বিভিন্ন ফরমালিনের ফলে আজ ক্যান্সারের মত রোগ ছড়িয়ে পড়ছে। ফলে অনেকেই অকালে মৃত্যুবরণ করছেন। নিরাপদ পানি পান না করলে পানিবাহিত রোগ ছড়িয়ে পড়ছে। শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, সাংবাদিকতার পাশাপাশি সমাজের জন্য মানুষের জন্য কিছু সামাজিক দায়বদ্ধতা আছে। এমন কিছু করার জন্যই আমার আজকের এই আয়োজন।

তিনি বলেন, আমি প্রতিদিন মানুষের নিকট এই কথাগুলিই বলার চেষ্টা করি। যদি কেউ তা পালন করি তবেই আমি সজল সফলতা অনুভব করি। তিনি সকল শিক্ষার্থীদের অন্তত একটি করে পত্রিকা পড়ার পরামর্শ দেন। কেননা পত্রিকা তাদের জন্য জ্ঞান অর্জনে অনেক সহায়ক। ফুলপুর উপজেলার ইউএনও জনাব রাশেদ হোসেন চৌধুরী সাংবাদিক নিয়ামুল কবীর সজলের এই মহান উদ্যাগকে স্বাগত জানান। তাঁর দেওয়া জনসচেতনতামূলক লিফলেটগুলো শিক্ষার্থীদের জন্য খুব গুরুত্বপূর্ণ হিসাবে বর্ণনা করেন। সকলকে লিফলেটগুলো পড়ার জন্য উপদেশ দেন তিনি।

তিনি বলেন, স্বাস্থ্য সঠিক রাখতে হলে ভেজালমুক্ত খাবার খেতে হবে। সকল শিক্ষার্থীকে বই পড়ার পরামর্শ দেন। তাঁর মতে বই তাদের জ্ঞান অর্জনের জন্য সহায়ক হতে পারে বলে তিনি আশা প্রকাশ করেন। কলেজ অধ্যক্ষা রওশন আরা ব্যাতিক্রম এই শিক্ষণীয় জনসচেতনতামূলক সামাজিক অনুষ্ঠান করার জন্য বিশিষ্ট সাংবাদিক নিয়ামুল কবীর সজলকে ধন্যবাদ জানিয়ে শিক্ষার্থীদের তা সঠিকভাবে মেনে চলার পরামর্শ জানিয়ে তার বক্তব্য শেষ করেন। ভবিষ্যতে কলেজে আরও এই ধরনের শিক্ষনীয় অনুষ্ঠান করার জন্য তিনি সাংবাদিক সজলের প্রতি আহব্বান জানান। অনুষ্ঠানটির উপস্থাপনায় ছিলেন, ফুলপুর মহিলা ডিগ্রি কলেজের বাংলাবিভাগের অধ্যাপক জনাব হাফিজুর রহমান। তার উপস্থাপনায় জনসচেতনতামূলক ভেজালবিরোধী এই অনুষ্ঠানটি আরো প্রাণবন্ত হয়ে ওঠে।

 


আরও পড়ুন

1 Comment

  1. I just want to tell you that I am just very new to weblog and really enjoyed this web blog. More than likely I’m likely to bookmark your blog post . You absolutely have fabulous articles and reviews. Kudos for sharing your blog.

Comments are closed.