দেশের খবর - March 10, 2020

শিক্ষা বোর্ডের বাইরে ডিপ্লোমা সনদ দেওয়া বন্ধ করাসহ ৫ দফা দাবি টেকনোলজিস্টদের

বাংলাদেশ কারিগরি শিক্ষা বোর্ডে নার্সিং ও মেডিক্যাল টেকনোলজি কোর্স বন্ধ করার আগে এই বিষয়ে শিক্ষার্থীদের অন্য যেকোনো শিক্ষা বোর্ডের অধীনে নেওয়ার দাবি জানানো হয়েছে।

মঙ্গলবার (১০ মার্চ) জাতীয় প্রেসক্লাবে এক সংবাদ সম্মেলনে এ দাবি জানায় বাংলাদেশ কারিগরি শিক্ষা বোর্ড মেডিক্যাল টেকনোলজিস্ট পরিষদ।

সংগঠনের সভাপতি ইমান উদ্দীন ডালিম বলেন, গত ১০ ফেব্রুয়ারি কারিগরি শিক্ষা বোর্ডের এক বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, তাদের অধীনে নার্সিং  ও মেডিক্যাল টেকনোলজি কোর্স বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। এখন থেকে এই কোর্স স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় দেখবে। কিন্তু স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ও আমাদের গ্রহণ করে কোনো প্রজ্ঞাপন দিচ্ছে না। বঙ্গবন্ধুর বাংলায় বৈষম্যের ঠাঁই নাই। একই পড়াশোনা করে অন্যরা সরকারি চাকরিতে প্রবেশের সুযোগ পাচ্ছে। আমরা কেন পাব না? আমাদের প্রায় ৭০ হাজার শিক্ষার্থী এবং তাদের সাড়ে ৩ লাখ মানুষের পরিবার অসহায় অবস্থায় রয়েছে। বর্তমান পরিস্থিতি বিবেচনা করে আমাদের অর্জিত শিক্ষাকে কাজে লাগানোর সুযোগ দিতে হবে।

পরিষদের সাধারণ সম্পাদক বেলাল হোসেন বলেন, আমরা চাইলে রাস্তায় নেমে আন্দোলন করতে পারতাম। কিন্তু সরকারের প্রতি আমরা শ্রদ্ধাশীল। এজন্য সংবাদ সম্মেলন করে আমাদের দাবি উত্থাপন করছি। আমরা এই দেশেরই নাগরিক, আমাদেরও সামাজিক মর্যাদা নিয়ে বেঁচে থাকার অধিকার রয়েছে। দেশ এগিয়ে যাচ্ছে, আমরাও এই অগ্রযাত্রায় অংশগ্রহণ করতে চাই।

এছাড়া পাঁচ দফা দাবি তুলে ধরেন ইমান উদ্দীন ডালিম। এর মধ্যে রয়েছে— নার্স ও টেকনোলজিস্ট সাবেক ও বর্তমান শিক্ষার্থীদের যেকোনো বোর্ডের আওতায় আনা, আগে পাসকৃতদের সরকারি চাকরিতে আবেদনের সুযোগ করে দেওয়া, সংশ্লিষ্ট (নার্স ও ফার্মেসি) কাউন্সিল থেকে সনদ দেওয়া, শিক্ষা বোর্ডের বাইরে ডিপ্লোমা সনদ দেওয়া বন্ধ করা।

উল্লেখ্য, বর্তমানে ২৭২টি প্রতিষ্ঠান থেকে নার্সিং, মেডিকেল টেকনোলজিস্ট, ডেন্টাল টেকনোলজিস্ট এবং ফার্মাসিস্টদের সনদ দেয় বাংলাদেশ কারিগরি শিক্ষা বোর্ড।


আরও পড়ুন