দেশের খবর - August 20, 2020

করোনা আংতকে অচেতন অবস্থায় পড়ে থাকা ব্যক্তিকে উদ্ধার করল ময়মনসিংহের পুলিশ

ময়মনসিংহের পুলিশ সুপার আহমার উজ্জামানের মানবিকতার বহিঃপ্রকাশ ক্রমেই বেড়ে চলেছে। করোনার ভয়াবহতম দিনগুলোতে দিনের পর দিন অসহায়, দুস্থ্য, না খেয়ে থাকা মানুষের পাশে খাবার নিয়ে হাজির হওয়াসহ চিকিৎসা বঞ্চিতদের জন্য বিনামুল্যে চিকিৎসা ও ওষুধ প্রদান করে জেলার সর্বত্র একজন মানবিক পুলিশ সুপার হিসাবে আলোচিত হন আহমার উজ্জামান। করোনার ভয়াবহতা কমতে থাকলেও এই মানবিক পুলিশ সুপার থেমে নেই।

বুধবার দুপুরে ময়মনসিংহের পাটগুদাম ব্রীজমোড়ে এক অজ্ঞাত ব্যক্তি অচেতন অবস্থায় পড়ে থাকার খবর পেয়ে মাত্র কয়েক মিনিটের মধ্যেই তাকে উদ্ধার করে পুলিশ ভ্যানে করে হাসপাতালে ভর্তি করেন। তার নাম বাবুল (৪৫)। বাড়ি নেত্রকোণার মোহনগঞ্জে।

কোতোয়ালী মডেল থানার ওসি ফিরোজ তালুকদার জানান, দুপুরে পাটগুদাম ব্রীজ মোড়ে এক অজ্ঞাত ব্যক্তি অচেতন অবস্থায় পড়ে রয়েছে। মুহুর্তেই পুলিশ সুপার আহমার উজ্জামানের কাছে খবর পৌছে যায়। পুলিশ সুপার দ্রুত কোতোয়ালী পুলিশকে ঘটনাস্থলে পৌছে তাকে উদ্ধার করে প্রয়োজনীয় পদপে নিতে নির্দেশ দেন।

খবর পেয়ে কোতোয়ালী মডেল থানা পুলিশের ওসি ফিরোজ তালুকদার, পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) মুশফিকুর রহমান, পুলিশ পরিদর্শক (ইন্টেলিজেন্ট) উজ্জল কান্তি সরকার, এসআই মিনহাজ উদ্দিনকে নিয়ে দ্রুত পাটগুদাম ব্রীজমোড়ে পৌছান। কোতোয়ালী পুলিশ ব্রীজমোড়ে গিয়ে স্থানীয়দের কাছ থেকে জানতে পারেন, অচেতন অবস্থায় পড়ে থাকা ঐ ব্যক্তি করোনায় আক্রান্ত রোগী তাই কেউ তাকে উদ্ধারে এগিয়ে আসছেনা। এ অবস্থায় কোতোয়ালী পুলিশ তাকে উদ্ধার করে পানি ও ফলের রস খাইয়ে চেতন ফিরিয়ে আনেন। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে পুলিশ ঐ ব্যক্তির নাম ঠিকানা সংগ্রহ করতে পারেন। তবে কোথা থেকে কিভাবে ময়মনসিংহ এসেছেন তা ঐ মুহুর্তে জানতে পারেনি। পরে তাকে দ্রুত ময়মনসিংহ মেডিকেল করেজ হাসপাতালের ১৪ নং ওয়ার্ডে ভর্তি করেন।

উদ্ধারকৃত বাবুল মোহনগঞ্জ উপজেলার বড়বাড়িখোলা গ্রামের মৃত কালাচানের ছেলে বলে পুলিশ জানায়।


আরও পড়ুন