কিশোরগঞ্জে জমে উঠেছে লক্ষ্মী প্রতিমা কেনাবেচা

লক্ষ্মী পূজাকে সামনে রেখে কিশোরগঞ্জ জেলা ও উপজেলায় মন্দিরে মন্দিরে প্রতিমা বিক্রি জমে উঠেছে। প্রতি বছর দুর্গাপূজার
বিজয় দশমী পর থেকে লক্ষ্মী প্রতিমার হাট বসে।

 

এ বছর শুক্রবার ৫.৪৯ মিনিট শুরু হয়ে শনিবার সন্ধ্যা ৭.৫৭ মিনিটে শেষ হবে। গত বুধবার থেকে শুরু হওয়া হাটে এখন চলছে কেনাবেচার ধুম। সনাতন ধর্মাবলম্বীরা দেখেশুনে পছন্দের লক্ষ্মী প্রতিমা কিনে নিয়ে যাচ্ছেন। জেলার বিভিন্ন স্থানে হাট বসলেও লক্ষ্মী প্রতিমা তৈরি হয় স্থানীয় মৃৎ শিল্পীদের বাড়ীতে। অনিল চন্দ্র পাল বলেন প্রায় ৩০ বছর ধরে কিশোরগঞ্জ কালীবাড়ীতে প্রতিমা বিক্রি করে আসছেন “এ অঞ্চলে ঘরে ঘরে লক্ষ্মীপূজা হয়। ফলে এই মন্দিরেই প্রতিমার ক্রেতাদের চাহিদা থাকায় এ সময়টা আমাদের আয়ও বেশি।”

 

প্রতিমা ক্রেতা স্থানীয় রাজন বিশ্বাস বলেন, “হিন্দু ধর্মাবলম্বীরা বিশ্বাস করেন যে, লক্ষ্মী দেবী তুষ্ট হলে ধন, সম্পদ ও ফসলে ধরণী পরিপূর্ণ হয়ে ওঠে। তাই ঘরে ঘরে এ দেবীর পূজা করা হয়।”

 

ক্রেতা নির্মল চন্দ্র বিশাস বলেন, “লক্ষ্মীপূজা করলে সংসারের অভাব অনটন দূর হয়। পরিবার নিয়ে সুখে শান্তিতে থাকতে পারি।” একই কথা জানিয়ে হাটে আসা।

 

দিব্যেন্দু চক্রবর্ত্তী বলেন, লক্ষীপূজা আসলেই আমরা কালীবাড়ী মন্দিরের প্রাঙ্গন থেকেই প্রতিমা কিনে আসছি।”

 

বাংলাদেশ পূজা উদযাপন পরিষদ কিশোরগঞ্জ জেলা শাখার সভাপতি এ্যাড. ভূপেন্দ্র ভৌমিক দোলন বলেন, “উৎসবমুখর পরিবেশে প্রতিমা বেচাকেনা চলছে।


আরও পড়ুন