পরীক্ষা পেছালেও সেশনজট হবে না

পরীক্ষা পেছালেও জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা সেশনজটে পড়বে না বলে জানিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি। এমনকি যাদের বয়স বেড়ে যাবে তাদেরও কোনো সমস্যা হবে না বলে আশ্বস্ত করেন তিনি।

বৃহস্পতিবার (২৫ ফেব্রুয়ারি) সন্ধ্যায় রাজধানীর সেগুনবাগিচায় একটি অনুষ্ঠানে শেষে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে তিনি এ কথা বলেন।

শিক্ষামন্ত্রী বলেন, দীর্ঘ সময় বন্ধ থাকার কারণে হলগুলোর সংস্কারকাজ এবং শিক্ষার্থীর সুরক্ষার কথা চিন্তা করে বিশ্ববিদ্যালয় খোলার জন্য সময় নেয়া হয়েছে।

তিনি আরো বলেন, আমাদের শিক্ষার্থীরা জাতির বৃহৎ স্বার্থের বিষয়টি বুঝবে। তাদের পরীক্ষা তিন মাস পর নিলেও তারা কোনো সেশনজটে পড়বে না। এমনকি বয়সজনিত বিষয়েও কোনো ধরনের সমস্যায় পড়বে না।

এ সময় শিক্ষার্থীদের সরকারের এই সিদ্ধান্ত মেনে নেয়ার আহ্বান জানান মন্ত্রী। শিক্ষার্থীরা আর আন্দোলন করবেন না বলেও প্রত্যাশার কথা জানান দীপু মনি।

বিভিন্ন আন্দোলনে ব্যর্থ হয়ে একটি মহল শিক্ষার্থীদের ব্যবহার করতে চাইছে বলেও অভিযোগ করেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি।

এদিকে স্থগিতাদেশ প্রত্যাহার করে পরীক্ষা নেয়া এবং আটক শিক্ষার্থীদের মুক্তি দিতে তিন দিনের আলটিমেটাম দিয়েছেন জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা। আন্দোলন স্থগিত করে তারা জানিয়েছেন, আগামী রোববারের মধ্যে দাবি আদায় না হলে তারা আবার আন্দোলনে নামবেন।

এর আগে বৃহস্পতিবার সকালে রাজধানীর শাহবাগে বিক্ষোভে নামেন জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অন্তর্ভুক্ত বিভিন্ন সরকারি কলেজের স্নাতক ও স্নাতকোত্তরের শিক্ষার্থীরা। এ সময় ১০ শিক্ষার্থীকে আটক করে পুলিশ। বেলা ২টার দিকে শিক্ষার্থীরা আন্দোলন স্থগিত করেন।

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের পরীক্ষা স্থগিতের প্রতিবাদে বৃহস্পতিবার সকাল ১০টার পর বেশ কিছু শিক্ষার্থী শাহবাগ মোড়ে এসে অবস্থান নেন। এ সময় তারা বিভিন্ন স্লোগান দেন। এতে যান চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। সৃষ্টি হয় তীব্র যানজট।

এর আগে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধিভুক্ত শিক্ষার্থীরা তাদের পরীক্ষা নেয়ার দাবিতে গত বুধবার শাহবাগ, নীলক্ষেত মোড়ে অবস্থান নেন। একপর্যায়ে স্থগিত পরীক্ষা নেয়ার কথা বলা হলে সড়ক ছেড়ে চলে যান তারা। পরে রাতেই সাত কলেজের তৃতীয় ও চতুর্থ বর্ষের স্থগিত পরীক্ষার রুটিন প্রকাশ করেছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ।


আরও পড়ুন