মুক্তিযোদ্ধা তালিকায় বাদ পড়ার খবরেই মৃত্যু!

নওগাঁর ধামইরহাটে মুক্তিযোদ্ধা তালিকা থেকে বাদ পড়ার খবর শুনে সাহার উদ্দিন (৮০) নামের এক ব্যক্তি স্ট্রোক করে মারা যাওয়ার খবর পাওয়া গেছে।

বৃহস্পতিবার বেলা ১১টার দিকে উপজেলার ধামইরহাট ইউনিয়নের নেওটা গ্রামে তার মৃত্যু হয়।

সাহার উদ্দিন ওই এলাকার মৃত নয়েজ উদ্দিনের ছেলে।

পরিবারের দাবি, একজন প্রকৃত মুক্তিযোদ্ধা হওয়ার পরও তালিকা থেকে নাম বাদ পড়ার অপমান সহ্য করতে না পেরে তার মৃত্যু হয়েছে।

জানা গেছে, ধামইরহাটে গেজেটভুক্ত বীর মুক্তিযোদ্ধা ৮৯ জন। ৬ ফেব্রুয়ারি ৮৯ জন বীর মুক্তিযোদ্ধার যাচাই-বাছাই সম্পন্ন করে জাতীয় মুক্তিযোদ্ধা কাউন্সিলের (জামুকা) উপজেলা কমিটি। বৃহস্পতিবার বীর মুক্তিযোদ্ধাদের নতুন তালিকা প্রকাশ করা হয়। সেই তালিকায় ৩২ জনকে পাস ও ৫৭ জনকে ফেল দেখানো হয়। নতুন তালিকায় সাহার উদ্দিনসহ ৫৭ জনের নাম নেই।

সাহার উদ্দিনের ছেলে দেলোয়ার হোসেন বলেন, আমার বোনের বাড়িতে ছিলেন বাবা। মুক্তিযোদ্ধা তালিকায় নাম না থাকার বিষয়টি জানানো হলে বেলা ১১টার দিকে বাবা স্ট্রোক করে মারা যান।

ধামইরহাট উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) ও মুক্তিযোদ্ধা যাচাই-বাছাই কমিটির সদস্য সচিব গণপতি রায় বলেন, মুক্তিযোদ্ধা যাচাই-বাছাই তালিকা প্রকাশের সঙ্গে সাহার উদ্দিনের মৃত্যুর সম্পর্ক নেই। তিনি বয়স্ক মানুষ; অসুস্থতার কারণে মৃত্যু হয়েছে। এরপরও তাকে রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় দাফন করা হয়েছে।

তিনি আরও বলেন, উপজেলার বীর মুক্তিযোদ্ধাদের প্রাথমিক তালিকা প্রকাশ করা হয়েছে। যারা বাদ পড়েছেন আপিলের সুযোগ রয়েছে। আপিলের পর চূড়ান্ত তালিকা প্রকাশ করা হবে।

জানা যায়, মুক্তিযোদ্ধা হিসেবে সাহার উদ্দিন প্রথম থেকেই সরকারি সুযোগ-সুবিধা ভোগ করে এসেছেন। তার গেজেট নম্বর ৩০৩৪।


আরও পড়ুন