ইংল্যান্ডের কাছে পাত্তাই পেল না কোহলিরা

প্রথম ম্যাচটা বাদ দিলে চার ম্যাচের টেস্টে সিরিজে ভারতের বিপক্ষে দাঁড়াতেই পারেনি ইংল্যান্ড। তবে টি-টোয়েন্টি সিরিজ শুরু হলো উল্টো রথে! পাঁচ ম্যাচ টি-টোয়েন্টি সিরিজের প্রথমটিতে ইংল্যান্ডের কাছে পাত্তাই পায়নি ভারত।

শুক্রবার আহমেদাবাদের মোতেরায় ইংল্যান্ডের জয় ৮ উইকেটের বড় ব্যবধানে। আগে ব্যাট করে ভারত মাত্র ১২৪ রান সংগ্রহ করে। যা কি না ২৭ বল হাতে রেখেই টপকে গেছে ইংলিশরা। ছক্কা মেরে দলের জয় নিশ্চিত করেছেন ডেভিড মালান।

রান তাড়া করতে নেমে উদ্বোধনী জুটিতেই মাত্র ৮ ওভারে ৭২ রান যোগ করে ফেলেন জস বাটলার ও জেসন রয়। বাটলার সাজঘরে ফেরেন ২৪ বলে ২৮ রান করে। তার ইনিংসে ছিল দুই চার ও একটি ছয়ের মার।

অপর ওপেনার জেসন রয় এগুচ্ছিলেন ব্যক্তিগত ফিফটির দিকে। কিন্তু তাকে ৪৯ রানে থামিয়ে দেন ওয়াশিংটন সুন্দর। রিভিউ নিয়েও বাঁচতে পারেননি ইংলিশ ওপেনার। তার ব্যাট থেকে আসা ৩২ বলের ইনিংসটিতে ছিল ৪টি চার ও ৩টি ছয়ের মার।

পরে বাকি কাজ সারেন জনি বেয়ারস্টো ও ডেভিড মালান। দুজনের ২৬ বলে ৪১ রানের অবিচ্ছিন্ন জুটিতে সহজ জয় পায় ইংল্যান্ড। মালান ২৪ ও বেয়ারস্টো ২৬ রানে অপরাজিত ছিলেন।

এর আগে সিরিজের প্রথম টি-টোয়েন্টিতে শুরুতেই বড়সড় ধাক্কা খেয়ে বসে টস হেরে ব্যাট করতে নামা ভারত। শেষপর্যন্ত শ্রেয়াস আইয়ারের ব্যাটে মোটামুটি একটা সংগ্রহ গড়তে পারে স্বাগতিকরা।

শিখর ধাওয়ান (৪), লোকেশ রাহুল (১), বিরাট কোহলিরা (০) টপ অর্ডারে ব্যর্থতার পরিচয় দিলে হাল ধরেন শ্রেয়াস আয়ার। রিশাভ পান্ত, হার্দিক পান্ডিয়া তাকে সঙ্গ দেয়ার চেষ্টা করলেও তাদের ব্যাটিংটা ঠিক টি-টোয়েন্টির সঙ্গে জুতসই ছিল না।

পান্ত ২৩ বলে করেন ২১ রান, হার্দিক ২১ বলে ১৯। তবে পাঁচ নম্বরে নামা আয়ার দলকে টেনে নিয়েছেন একদম শেষ ওভার পর্যন্ত। ইনিংসের ৩ বল বাকি থাকতে আউট হন তিনি ৬৭ রান করে, ৪৮ বলের ইনিংসে ৮টি চারের সঙ্গে হাঁকান ১টি ছক্কাও।

ইংলিশ বোলারদের মধ্যে সবচেয়ে সফল ছিলেন জোফরা আর্চার। ৪ ওভারে ২৩ রান খরচায় ৩টি উইকেট নেন এই পেসার।


আরও পড়ুন