কিশোরগঞ্জে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ২

কিশোরগঞ্জে লরি ট্রাক্টরের সাথে সিএনজির মুখোমুখি সংঘর্ষে দুজন নিহত হয়েছেন। সিএনজি চালক ও যাত্রীসহ তিনজন গুরুতর আহত হয়েছে। রোববার (১৪ মার্চ) দুপুরে কিশোরগঞ্জ-তাড়াইল সড়কে সদর উপজেলার মাইজখাপন ইউনিয়নের রাজ্জাক মুন্সী বাড়ির সামনে এই দুর্ঘটনাটি ঘটে।

এতে তাড়াইল উপজেলার রাউতি ইউনিয়নের ভাওয়াল ভূঞাবাড়ির আজিম উদ্দিন ভূঞার ছেলে আসাদুজ্জামান ভূঞা বাবলু (৪০) ও তাড়াইল উপজেলার দামিহা গ্রামের গিয়াস উদ্দিনের ছেলে মোশাররফ হোসেন দেলোয়ার (২০) নামে দুই সিএনজি যাত্রী নিহত হয়েছেন। আহতরা হলেন সিএনজি চালক বাদল (৩০) , সিএনজি যাত্রী পপি (২২) ও মোহাম্মদ আলী। তাদের মধ্যে সিএনজি চালক বাদলের অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় তাকে কিশোরগঞ্জ ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে।

জানা গেছে, কিশোরগঞ্জ থেকে যাত্রী নিয়ে সিএনজিচালিত অটোরিকশা (কিশোরগঞ্জ থ-১১-২৯৫২) তাড়াইল যাচ্ছিল।দুপুর সোয়া ২টার দিকে সদর উপজেলার মাইজখাপন ইউনিয়নের রাজ্জাক মুন্সী বাড়ির সামনে বিপরীত দিক থেকে আসা বেপরোয়া গতির একটি লরি ট্রাক্টর সিএনজিটিকে চাপা দেয়।এতে সিএনজিটি দুমড়ে-মুচড়ে যায় এবং চালক ও সিএনজিতে থাকা চার যাত্রী গুরুতর আহত হয়। তাদেরকে উদ্ধার করে মোশাররফ হোসেন দেলোয়ার, বাদল, পপি ও মোহাম্মদ আলী এই চারজনকে কিশোরগঞ্জ ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মোশাররফ হোসেন দেলোয়ার মারা যায়। এছাড়া আহত অন্যদের মধ্যে পপি ও মোহাম্মদ আলী হাসপাতালে প্রাথমিক চিকিৎসা নেয় এবং সিএনজি চালক বাদলকে অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় তাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। অন্যদিকে অপর আহত আসাদুজ্জামান ভূঞা বাবলুকে কিশোরগঞ্জের শহীদ সৈয়দ নজরুল ইসলাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

কিশোরগঞ্জ সদর মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. আবুবকর সিদ্দিক ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।


আরও পড়ুন