খোলা থাকবে ব্যাংক, লেনদেন দিনে ৪ ঘণ্টা

লকডাউনে ব্যাংক বন্ধের ঘোষণা দিলেও সেই সিদ্ধান্তে কিছুটা পরিবর্তন এসেছে। ১৪ এপ্রিল থেকে আগামী ২১ এপ্রিল পর্যন্ত লকডাউনের (বিধিনিষেধের) মধ্যে বিশেষ প্রয়োজনে ব্যাংকিং সেবা নিশ্চিত করার নির্দেশনা দেয়া হয়েছে। মঙ্গলবার এমন নির্দেশনা দিয়ে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ থেকে বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নরের কাছে চিঠি পাঠানো হয়েছে।

নির্দেশনা অনুযায়ী, বিশেষে প্রয়োজনে ব্যাংকিং কার্যক্রম পরিচালনার জন্য ব্যাংক খোলা রাখার কথা বলা হয়।

এ প্রসঙ্গে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের উপসচিব রেজাউল ইসলাম বলেন, বিশেষ প্রয়োজনে ব্যাংক চালু রাখতে এ চিঠি পাঠানো হয়েছে। এ বিষয়ে বাংলাদেশ ব্যাংক থেকে প্রজ্ঞাপন জারি করা হবে।

এদিকে নির্দেশনা পেয়ে বাংলাদেশ ব্যাংক সন্ধ্যায় প্রজ্ঞাপন দিয়ে জানায়, লকডাউনে সকাল ৯ টা ৩০ থেকে দুপুর দেড়টা পর্যন্ত ব্যাংক খোলা থাকবে।

উল্লেখ্য, করোনাভাইরাস সংক্রমণ বেড়ে যাওয়ায় পরিস্থিতি সামাল দিতে বুধবার থেকে এক সপ্তাহ কঠোর বিধিনিষেধ আরোপ করে সরকার। তার সঙ্গে মিল রেখে ১৪ থেকে ২১ এপ্রিল বাংলাদেশের সমস্ত তফসিলি ব্যাংক বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত জানায় বাংলাদেশ ব্যাংক। সর্বাত্মক লকডাউন শুরুর আগের দিন এজন্য ব্যাংকগুলোতে দেখা গেছে উপচে পড়া ভিড়।

সরেজমিনে রাজধানীর ব্যাংকপাড়া মতিঝিল, দিলকুশা, দৈনিক বাংলা, পল্টনসহ বিভিন্ন এলাকা ঘুরে দেখা যায়, বেশিরভাগ ব্যাংকের শাখায় ভিড় করেছেন বিপুল সংখ্যক গ্রাহক।

ব্যাংকাররা বলছেন, সাত দিন ব‌ন্ধের খবরে আজ‌ স্বাভাবিক দি‌নের তুলনায় গ্রাহ‌কের চাপ অনেক বেশি। তবে টাকা জমা দেওয়ার চেয়ে উত্তোলন বেশি করছেন গ্রাহকরা।


আরও পড়ুন