মামুনুলকে ২৪ দিনের রিমান্ডে চায় ডিবি

কারাগারে থাকা হেফাজতে ইসলামের বিলুপ্ত কমিটির যুগ্ম মহাসচিব মামুনুল হকের বিরুদ্ধে নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁও থানায় দায়ের করা সহিংসতা ও ধর্ষণসহ পৃথক তিনটি মামলায় গ্রেপ্তারসহ ২৪ দিনের রিমান্ড আবেদন করেছে পুলিশ ও জেলা গোয়েন্দা (ডিবি) পুলিশ।

রোববার সকালে সোনারগাঁও থানার দায়ের করা ঝর্ণার মামলার পুলিশ ১০ দিনের, রয়েল রিসোর্ট কাণ্ডে ডিবি ৭ দিনের ও উপজেলা আওয়ামী লীগের অফিস ভাঙচুর মামলায় ৭ দিনের রিমান্ড আবেদন করেন ডিবি।

সোনারগাঁও থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) হাফিজুর রহমান বলেন, ‘আমরা সকালে তিনটি মামলায় মামুনুল হককে গ্রেপ্তার ও ২৪ দিনের রিমান্ডের জন্য চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে আবেদন করেছি। দুপুর ১টা পর্যন্ত আদালত থেকে কোনো আদেশ পাইনি।’

এর আগে প্রলোভনে ধর্ষণ, প্রতারণা, নির্যাতনের অভিযোগ এনে গত ৩০ এপ্রিল শুক্রবার নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁও থানায় মামলা করেন জান্নাত আরা ঝর্ণা। মামুনুল হক দ্বিতীয় স্ত্রী দাবি করলেও মামলায় জান্নাত নিজেকে মামুনুল হকের স্ত্রী বলেননি।

প্রসঙ্গত, ৩ এপ্রিল ‘বিকেল ৫টায় সোনারগাঁয়ের রয়েল রিসোর্টের ৫০১ নাম্বার কক্ষে মামুনুল হককে নারীসহ অবরুদ্ধ করে রাখে উপজেলা যুবলীগের, ছাত্রলীগসহ স্থানীয় কয়েকজন। সন্ধ্যা ৭টায় মামুনুল হককে অবরুদ্ধ করে রাখা হয়েছে খবর পেয়ে স্থানীয় হেফাজতে ইসলামের নেতাকর্মীরা রয়েল রিসোর্ট ভাঙচুর করে নারীসহ মামুনুল হককে ছিনিয়ে নিয়ে যায়।

এ ঘটনায় গাড়ি ভাঙচুর, মহাসড়কে আগুন দিয়ে বিক্ষোভ, আওয়ামীলীগ অফিস, যুবলীগ, ছাত্রলীগ নেতার বাড়িঘরে হামলা চালিয়ে ভাঙচুর করে। এক সাংবাদিককে পিটিয়ে আহত করে। এ ঘটনায় পুলিশ বাদী হয়ে দুটি ও সাংবাদিক একটি মামলা দায়ের করেন। তার কিছুদিন পর স্থানীয়রা আরো তিনটি মামলা দায়ের করেন। ৬টি মামলার মধ্যে তিনটি মামলায় প্রধান আসামি মামুনুল হক।


আরও পড়ুন