খালেদা জিয়াকে বিদেশ নিতে কেউ আবেদন করেনি : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার চিকিৎসার জন্য তাকে বিদেশে নিতে সরকারের কাছে কোনো আবেদন করা হয়নি বলে জানিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল।

মঙ্গলবার রাজধানীর ফার্মগেট পূর্ব রাজাবাজারের নাজনীন স্কুলে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার পক্ষ থেকে কর্মহীন আসহায় মানুষের মাঝে ঈদ উপহার বিতরণ অনুষ্ঠান শেষে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা বলেন।

আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল বলেন, বিএনপির চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া করোনা আক্রান্ত হয়ে তার ইচ্ছানুযায়ী রাজধানীর একটি বেসরকারি হাসপাতালে চিকিৎসা নিচ্ছেন। সেখানে বিশেষজ্ঞ ডাক্তাররা তাকে চিকিৎসা দিচ্ছেন বলে আমরা জানি। খালেদা জিয়া কিংবা তার পরিবারের তরফ থেকে কোনো আবেদন-নিবেদন আমাদের কাছে আসেনি।

তিনি বলেন, বিদেশ নিতে পারবে কী পারবে না সেটা আদালত নির্ধারণ করবেন। এরপরও তিনি যেন দেশে থেকে সুচিকিৎসা পান সে ব্যবস্থা প্রধানমন্ত্রী করে দিয়েছেন। এরপরেও যদি তিনি (খালেদা জিয়া) আরো কিছু পেতে চান তাহলে আদালতের মাধ্যমে আসতে হবে।

কর্মহীন অসহায় মানুষের মাঝে ঈদ উপহার বিতরণ অনুষ্ঠানে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, যেখানে অন্যান্য দেশে জিডিপির হার কমে যাচ্ছে কিন্তু বাংলাদেশ সমানতালে এগিয়ে যাচ্ছে। এটাকেই বলে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্ব। দেশ এগিয়ে গেলেও প্রধানমন্ত্রী গরীব মানুষের কথা ভুলে যাননি। তিনি কেবল আমাদের নেতা না, বিশ্বের নন্দিত নেতা।

মন্ত্রী বলেন, গরীব মানুষ যাতে কষ্ট না হয় সে জন্য শেখ হাসিনা আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের পাশে দাঁড়াতে বলেছেন। এ ছাড়া শেখ হাসিনা দেশের ৩৫ লাখ গরীব মানুষের জন্য ২৫ শ করে টাকা দেওয়ার উদ্যোগ নিয়েছেন। কেউ যাতে বস্ত্রে, খাদ্যে কষ্ট না পায় সে জন্য সরকার কাজ করে যাচ্ছে।

আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল বলেন, করোনার মধ্যেও আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা মানুষের সেবায় কাজ করে যাচ্ছে।  শেরেববাংলা নগর থানা আওয়ামী লীগের উদ্যোগে ঈদ উপহার বিতরণ করা হয়।

উনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন শেরেবাংলা নগর থানা আওয়ামী লীগের সভাপতি সাব্বির হোসেন মাছুদ।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন ঢাকা মহানগর উত্তরের আওয়ামী লীগের সভাপতি শেখ বজলুর রহমান ও সাধারণ সম্পাদক এস এম মান্না কচি।


আরও পড়ুন