সাবেক এমপি রানার বিরুদ্ধে মানহানি মামলা

আওয়ামী লীগ নেতা ফারুক আহমেদ হত্যা মামলার প্রধান আসামি টাঙ্গাইল-৩ (ঘাটাইল) আসনের সাবেক এমপি আমানুর রহমান খান রানার বিরুদ্ধে পাঁচ কোটি টাকার মানহানি মামলা দায়ের করা হয়েছে। টাঙ্গাইল চেম্বার অব কর্মাস সাধারণ সম্পাদক গোলাম কিবরিয়া বড় মনি আজ বুধবার এ মামলা করেন। আদালত মামলাটি আমলে নিয়ে তদন্ত জন্য পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশনকে (পিবিআই) নির্দেশ দিয়েছেন।

গোলাম কিবরিয়া বড় মনি টাঙ্গাইল-২ (গোপালপুর-ভূঞাপুর) আসনের এমপি তানভীর হাসান ছোট মনির বড় ভাই। তিনি টাঙ্গাইল শহর আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি।

মামলার বাদি পক্ষের আইনজীবী রফিকুল ইসলাম জানান, গত সোমবার আমানুর রহমান খান রানা টাঙ্গাইল প্রেসক্লাবে একটি সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্ত্যবে বলেন, ‘তার (রানার) বড় ভাই আমিনুর রহমান খান বাপ্পির হত্যাকারী গোলাম কিবরিয়া বড় মনি এবং তার ছোট ভাই তানভীর হাসান ছোট মনি। এ ছাড়া তারা দুই ভাই জার্মানিতে অস্ত্রের ব্যবসা করে কোটি কোটি টাকা আয় করেছেন।’ অথচ আমিনুর রহমান খান বাপ্পি হত্যার সাত বছর আগেই তারা দুই ভাই জার্মানিতে চলে যান। দেশে ফেরেন বাপ্পি হত্যার ঘটনার ৬-৭ বছর পর।

আইনজীবী রফিকুল ইসলাম জানান, বাপ্পি হত্যাকাণ্ডের পর তার বাবা আতাউর রহমান খান বাদি হয়ে যে মামলা করেন সেখানে গোলাম কিবরিয়া বড় মনি বা তানভীর হাসান ছোট মনির কারও নাম ছিল না। পরর্বতীতে পুলিশ তদন্ত করে আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করেন। সেখানেও তাদের নাম নেই। তা ছাড়া তারা জার্মানিতে মাটরগাড়ি ক্রয়-বিক্রয় ব্যবসার সঙ্গে জড়িত ছিল। অথচ মিথ্যা তথ্য উপস্থাপন করে গোলাম কিবরয়িা বড় মনি ও তার পরিবারের সদস্যদের হেয় প্রতিপন্ন্য করা হয়েছে। এতে তারা ব্যক্তিগত, পারিবারিক ও রাজনতৈকিভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। তার পাঁচ কোটি টাকার সম্মানহানি হয়েছে।

টাঙ্গাইলের আদালত পরির্দশক তানভির আহমেদ জানান, টাঙ্গাইল সদর আমলী আদালতের বিচারক সিনিয়র জুডশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট শুনানি শেষে মামলাটি তদন্তের জন্য পিবিআইকে দায়িত্ব দেন ।

উল্লেখ্য, গত ১ জুন তপন রবিদাস নামে এক ব্যক্তি টাঙ্গাইল প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলন করে অভিযোগ করেন আমানুর রহমান খান রানা তাকে রিভলবার ঠেকিয়ে হত্যার হুমকি দিয়েছেন। এই অভিযোগের বিরুদ্ধে আমানুর রহমান গত সোমবার একই স্থানে সংবাদ সম্মেলনে করেন।


আরও পড়ুন