নদীতে ভেঙে পড়ল সেতু

টাঙ্গাইলের গোপালপুরে বৈরাণ নদীর উপর সেতুটি ভেঙে পানিতে পড়ে গেছে। শুক্রবার সকালে পৌরশহরের কালীমন্দির সংলগ্ন কোনাবাড়ী হাটে প্রবেশ মুখের সেতুটি ভেঙে পড়ে। পারাপারের জন্য নদীর উপর বিকল্প কোনো ব্যবস্থা না করায় জনগণের দুর্ভোগ চরমে উঠেছে।

জানা যায়, ১৯৯২ সালে সেতুটি নির্মাণ করা হয়। নির্মাণকাজ অপরিকল্পিত ও নিম্নমানের উপকরণ ব্যবহারের ফলে তিন বছরের মাথায় দুটি পিলার আলগা হয়ে যায়। পরে আরও দুটি পিলারের একই অবস্থা হয়। রেলিং ভেঙে পড়ায় বাঁশ দিয়ে রেলিং তৈরি করা হয়।

সেতুর পিলারে কয়েক জায়গায় ফেটে যাওয়ায় কর্তৃপক্ষ এটিকে কয়েক বছর আগেই বিপজ্জনক ঘোষণা করে। সংস্কারের অভাবে সেতুটি অচলাবস্থায় পড়লেও প্রতিদিন এর উপর দিয়ে মানুষসহ যানবাহন পারাপার করে আসছিল।

অতিরিক্ত চাপের ফলে এটি ভেঙে নদীতে পড়ায় নগদাশিমলা ও হাদিরা ইউনিয়নের মানুষের দুর্ভোগ চরমে উঠেছে। তাদের প্রায় এক কিলোমিটার ঘুরে থানা ব্রিজ দিয়ে যাতায়াত করতে হচ্ছে। স্থানীয়রা সেতুটি দ্রুত নির্মাণের দাবি জানান।

পৌর মেয়র রকিবুল হক ছানা বলেন, এটি পুরনো একটি ফুটব্রিজ ছিল। পাইলিং ছাড়া নির্মাণ করায় অতিবৃষ্টির কারণে সকালে এটি ভেঙে পড়েছে। পৌরসভায় তেইশ কোটি টাকার একটি বরাদ্দ পাওয়া গেছে। সেখান থেকে শুষ্ক মৌসুমে এখানে বড় একটি সেতু নির্মাণ করা হবে। এখন চলাচলের জন্য বড় আকারে একটি বাঁশের সেতু তৈরি করা হবে।


আরও পড়ুন