কিশোরগঞ্জে প্রধানমন্ত্রীর ঘর পাচ্ছে আরো ৬৩১টি পরিবার

‘মুজিব শতবর্ষে বাংলাদেশের একজন মানুষও গৃহহীন থাকবে না’- প্রধানমন্ত্রীর এই নির্দেশনা অনুযায়ী কিশোরগঞ্জ জেলায় আরো ৬৩১টি ভূমিহীন ও গৃহহীন পরিবারকে জমি ও গৃহ প্রদান করা হচ্ছে। এর আগে প্রথম পর্যায়ে জেলার ১৩টি উপজেলায় ৬১৬টি ভূমিহীন ও গৃহহীন পরিবারকে ২ শতাংশ জমিসহ গৃহ প্রদান করা হয়।

এ উপলক্ষে ‘আশ্রয়ণের অধিকার, শেখ হাসিনার উপহার’ স্লোগানকে সামনে রেখে শুক্রবার (১৮ জুন) সকালে সার্কিট হাউজ সম্মেলন কক্ষে সাংবাদিকদের সাথে এক অবহিতকরণ সভা করেছে জেলা প্রশাসন। সভায় সভাপতিত্ব করেন জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ শামীম আলম। এতে স্থানীয় সরকার বিভাগের উপপরিচালক (উপসচিব) মোহাম্মদ হাবিবুর রহমান, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) মোহাম্মদ নূরুজ্জামান, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মোহাম্মদ গোলাম মোস্তফা, অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট ফরিদা ইয়াসমিন, কিশোরগঞ্জ সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. আব্দুল কাদির মিয়া সহকারী কমিশনার (ভূমি) সাগুফতা হক,ম্যাজিস্ট্রেট উম্মে হাফসা নাদিয়া প্রমুখসহ জেলা প্রশাসনের বিভিন্ন পর্যায়ের কর্মকর্তাগণ উপস্থিত ছিলেন।

জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ শামীম আলম জানান, কিশোরগঞ্জ জেলার ১৩টি উপজেলায় প্রথম পর্যায়ে ৬১৬টি ভূমিহীন ও গৃহহীন পরিবারকে ২ শতাংশ জমিসহ গৃহ প্রদান করা হয়। এছাড়া ইটনা উপজেলায় দুইটি ব্যারাকে মোট ২৭০টি ঘর পরিবারকে পুনর্বাসিত করা হয়েছে।দ্বিতীয় পর্যায়ে আরো ৬৩১টি পরিবারকে জমিসহ গৃহ প্রদান করা হবে।রোববার (২০ জুন) সকাল সাড়ে ১০টায় গণভবন থেকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ভিডিও কনফারেন্সিং এর মাধ্যমে সারা দেশে একযোগে দ্বিতীয় পর্যায়ের মোট ৫৩ হাজার ৩৪০টি ভূমিহীন ও গৃহহীন পরিবারকে দুই শতাংশ জমিসহ গৃহের কবুলিয়ত দলিল, নামজারি, গৃহ প্রদানের সনদ, ডিসিআর কপি ও ঘরের চাবি হস্তান্তর কার্যক্রমের শুভ উদ্বোধন করবেন।


আরও পড়ুন