টিকা নেওয়ার বয়স ১৮ বছর করার ভাবনা সরকারের

শিক্ষার্থীদের বিষয়টি মাথায় রেখে সরকার করোনাভাইরাসের (কোভিড-১৯) টিকার জন্য নিবন্ধনের ন্যূনতম বয়সসীমা কমিয়ে ১৮ বছর করার চিন্তা-ভাবনা করছে বলে জানিয়েছেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক।

রবিবার ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের আইসিইউ সম্প্রসারণ এবং ওপিডি উদ্বোধন করতে গিয়ে তিনি এ কথা জানান।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, টিকা পাওয়ার বয়সসীমা কমিয়ে ১৮ বছর পর্যন্ত করার সুপারিশ এসেছে। আমরা চিন্তা করছি এটা কমিয়ে আনার।

তিনি বলেন, ভ্যাকসিন গ্রহণের বয়সসীমা কমিয়ে আনার বিষয়ে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে আলোচনা হয়েছে। আমরা ছেলে-মেয়েদের তাড়াতাড়ি স্কুল-কলেজে পাঠাতে চাই।

জাহিদ মালেক বলেন, শিক্ষকদের আমরা ভ্যাকসিন দিয়েছি এবং ১৮ বছর ও এর বেশি বয়সী ছেলে-মেয়েদের আমরা ভ্যাকসিনের আওতায় নিয়ে আসবো।

‘তাদের স্কুল-কলেজে যাওয়ার সুযোগ করে দেবো। তাদের জীবনের একটা বছর নষ্ট হয়ে যাচ্ছে। এটা একটা দেশের জন্য বিরাট ক্ষতি’ যোগ করেন তিনি।

গত ৭ ফেব্রুয়ারি দেশে গণটিকাদান শুরু সময় টিকা নেওয়ার বয়সসীমা ন্যূনতম ৪০ বছর নির্ধারণ করা হয়। পরে গত ৭ জুলাই নতুন করে নিবন্ধন শুরুর সময় তা কমিয়ে ৩৫ বছর করা হয়েছে।

তবে বেশ কিছু পেশাজীবী শ্রেণি, বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থী, প্রবাসী কর্মী এবং প্রাধিকার তালিকায় থাকা ব্যক্তিদের ক্ষেত্রে বয়সসীমার বিষয়টি শিথিল করা হয়েছে।


আরও পড়ুন