কুলিয়ারচর - July 24, 2021

কুলিয়ারচরে রাস্তায় গান বাজানোকে কেন্দ্র করে নিহত ১

কিশোরগঞ্জের কুলিয়ারচর উপজেলার রামদী ইউনিয়নের খাড়িয়াকান্দা গ্রামের কিছু যুবক ঈদ আনন্দ উপভোগ করার জন্য অটোরিকশায় উচ্চস্বরে রাস্তায় গান বাজনা করার সময় রামদী এলাকার কিছু যুবক বাঁধা দিলে দুই পক্ষের মধ্যে কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে প্রতিপক্ষের ধারালো অস্ত্রের আঘাতে মো. শাহ্ আলম (২০) নামের এক যুবক নিহত হয়েছে।

এছাড়া এ ঘটনায় জীবন (১৯) ও আশাদুল্লা (১৯) নামে দুই যুবক গুরতর আহত হয়েছে।

শুক্রবার (২৩ জুলাই) রাত ৯টার দিকে রামদী ফিড মিলের সামনে এ ঘটনাটি ঘটে।

নিহত মো. শাহ্ আলম খাড়িয়াকান্দা গ্রামের আহাম্মদ আলীর ছেলে। এছাড়া আহতদের মধ্যে জীবন একই গ্রামের মস্তু মিয়ার ছেলে ও আশাদুল্লাহ অলি মামুদের ছেলে।

এ ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য কুলিয়ারচর থানা পুলিশ রবিন ( ২০), বিজয় (২৪), জামাল (২১) ও চয়ন (১৮) নামের চারজনকে আটক করে ৫৪ ধারায় গ্রেপ্তার দেখিয়ে শনিবার (২৪ জুলাই) আদালতে প্রেরণ করেছে।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্র জানায়, শুক্রবার (২৩ জুলাই) রাত সাড়ে ৮টার দিকে খাড়িয়াকান্দা গ্রামের কিছু যুবক ঈদ আনন্দ উপভোগ করার জন্য অটোরিকশার সাউন্ডবক্সে উচ্চ স্বরে গান বাজিয়ে খাড়িয়াকান্দা গ্রাম থেকে বড়চর গ্রামের দিকে যায়।

পরবর্তীতে ওই অটোরিকশাটি সাউন্ড বক্সে গান বাজিয়ে ফেরত আসার পথে রামদী ফিড মিলের সামনে পৌঁছালে রামদী এলাকার কিছু ছেলে তাদের এইভাবে গানবাজনা না করার জন্য বলে।

এ নিয়ে দুই পক্ষের মধ্যে কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে সুইচ গিয়ার চাকু দিয়ে গানবাজনায় মত্ত থাকা খাড়িয়াকান্দা গ্রামের যুবকদের আঘাত করে রামদী এলাকার যুবকেরা।

এতে মো. শাহ্ আলম, জীবন ও আশাদুল্লাহ গুরতর আহত হয়। আহতদের উদ্ধার করে বাজিতপুর জহুরল ইসলাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়ার পথে শাহ্ আলম মারা যায়।

এছাড়া জীবন ও আশাদুল্লাকে বাজিতপুর জহুরল ইসলাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। পরবর্তীতে তাদের শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়।

বাজিতপুর থানা পুলিশ নিহত শাহ্ আলমের লাশ উদ্ধার করে সুরতহাল রিপোর্ট তৈরি করে ময়নাতদন্তের জন্য কিশোরগঞ্জ ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করেছে।

খবর পেয়ে কুলিয়ারচর থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মো. মিজানুর রহমান ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।

এ ব্যাপারে কুলিয়ারচর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) এ কে এম সুলতান মাহমুদ বলেন, এ ঘটনায় এখনো কোন অভিযোগ পাওয়া যায়নি। অভিযোগের ভিত্তিতে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।


আরও পড়ুন