২০২২ সাল পর্যন্ত বুস্টার ডোজ স্থগিত রাখার আহ্বান

দরিদ্র দেশগুলো পুরোপুরিভাবে এখনো ভ্যাকসিন পায়নি। তাই চলতি বছরের শেষ নাগাদ পর্যন্ত বাড়তি কোভিড-১৯ ভ্যাকসিন ডোজ না দেওয়ার আহ্বান জানিয়েছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা। গত বুধবার মার্কিন সাময়িকী ফোর্বস’র প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার প্রধান টেড্রোস আধানম গ্যাব্রিয়াসুস বলেন, ‘উচ্চ আয়ের দেশগুলো দরিদ্র দেশগুলোকে এক বিলিয়নের বেশি ভ্যাকসিন ডোজ দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছিল। তবে সেই ডোজের ১৫ শতাংশেরও কম বাস্তবায়িত হয়েছে।’

জেনেভায় বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার সদর দপ্তর থেকে সংস্থাটির প্রধান সাংবাদিকদের বলেন, ‘তারা (ধনী দেশ) যেন বুস্টার ডোজের চেয়ে দরিদ্র দেশগুলোতে স্বাস্থ্যকর্মী এবং দুর্বল জনগোষ্ঠীর কাছে প্রথম টিকা পাওয়াকে অগ্রাধিকার দেয়।’

পুরোপুরি টিকাপ্রাপ্ত সুস্থ ব্যক্তিদের জন্য বুস্টারের ব্যাপক ব্যবহার দেখতে চান না বলে জানান বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার প্রধান। তিনি বলেন, ‘আমি অন্তত বছরের শেষ পর্যন্ত স্থগিতাদেশ বাড়ানোর আহবান জানাচ্ছি।’

গ্যাব্রিয়াসুস বলেন, ‘যখন ভ্যাকসিন সরবরাহ নিয়ন্ত্রণ করা হয়, তখন আমি চুপ থাকব না। তারা মনে করে বিশ্বের দরিদ্রদের উচ্ছিষ্ট নিয়ে সন্তুষ্ট হওয়া উচিত।’

ধনী ও দরিদ্র দেশগুলোর মধ্যে ডোজ বিতরণে কঠোর অসাম্য দূর করতে গত মাসে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা সেপ্টেম্বরের শেষ পর্যন্ত কভিড-১৯ ভ্যাকসিন বুস্টার ডোজের ওপর স্থগিতাদেশের আহবান জানিয়েছে। তবে টেড্রোস জানান, বিশ্বের পরিস্থিতির খুব কম পরিবর্তন হয়েছে।


আরও পড়ুন