সেক্স-টেপ কাণ্ডে শাস্তি পেলেন বেনজেমা

২০১৫ সালের আলোচিত ‘সেক্স টেপ’-কাণ্ডে দোষী প্রমাণিত হয়েছেন রিয়াল মাদ্রিদের ফরাসি স্ট্রাইকার করিম বেনজেমা।

জাতীয় দলের সাবেক সতীর্থ ম্যাথু ভালবুয়েনাকে ব্ল্যাকমেইল করার সঙ্গে জড়িত থাকায় বুধবার তাকে এক বছরের স্থগিত কারাদণ্ড দিয়েছেন ফ্রান্সের একটি আদালত। পাশাপাশি ৭৫ হাজার ইউরো জরিমানা করা হয়েছে এই ফরাসি ফরোয়ার্ডকে।

রায় ঘোষণার সময় আদালতে উপস্থিত ছিলেন না করিম বেনজেমা।

তবে এ শাস্তির বিরুদ্ধে বেনজেমা আপিল করবেন বলে জানিয়েছেন তার আইনজীবী।

অবশ্য আপিলে হারলেও সমস্যা নেই এ রিয়াল তারকার। স্থগিত কারাদণ্ড হওয়ায় জেলে যেতে হবে না বেনজেমাকে।

রায় ঘোষণার পর তার আইনজীবী অঁতোয়ান ভেই সাংবাদিকদের বলেন, এই রায়ে কোনোভাবেই বাস্তব ঘটনার প্রতিফলন পড়েনি।

ফ্রান্স ফুটবল ফেডারেশনের প্রেসিডেন্ট নোয়েল লা গ্রায়েত বলেছেন, বেনজেমার ক্যারিয়ার এতে ক্ষতিগ্রস্ত হবে না।

এদিকে বেনজেমার রায় নিয়ে তাৎক্ষনিকভাবে কোনো মন্তব্য করতে রাজি হয়নি তার ক্লাব রিয়াল মাদ্রিদ।

আদালতে কৌশুলিদের মূল অভিযোগ ছিল, ব্ল্যাকমেইলারকে অর্থ দিয়ে বিষয়টি লোকচক্ষুর আড়ালে রাখার জন্য মাথিউ ভালবুয়েনাকে প্ররোচিত করেছিলেন বেনজেমা। মূলত এর প্রেক্ষিতেই আদালতে যুক্তি-তর্ক উপস্থাপন করেন তারা।

উল্লেখ্য, ২০১৫ সালের জুনে প্যারিসে ফরাসি দলের অনুশীলনের সময় ভালবুয়েনা ব্ল্যাকমেইলারদের ফোন পান। অর্থ না দিলে ফোনে তাকে ওই ভিডিও ছড়িয়ে দেওয়ার হুমকি দেয় ব্ল্যাকমেইলাররা। তার ক্যারিয়ার ও জাতীয় দলে জায়গা খেলা নিয়েও ভয় দেখিয়েছিলেন তারা।

গত অক্টোবরে রয়টার্সের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছিল, ভালবুয়েনাকে অর্থ দিয়ে বিষয়টি মিটমাট করতে ব্ল্যাকমেইলাররা বেনজেমাকে নিয়োগ দেয়।

এ ঘটনার পর সাড়ে পাঁচ বছর জাতীয় দলের বাইরে ছিলেন বেনজেমা।

তথ্যসূত্র: নিউইয়র্ক টাইমস


আরও পড়ুন