নিলামে উঠছে বিশ্বের প্রথম এসএমএস

আজকাল টেক্সট ম্যাসেজ পাঠানো কতই না সহজ। এখন বিভিন্ন ম্যাসেজিং অ্যাপস আসার পর টেক্সট ম্যাসেজের ব্যবহার খুবই কমে গেছে। আজ থেকে ৩০ বছর আগে প্রথম টেক্সট ম্যাসেজ পাঠানো হয়েছিল। ওই ম্যাসেজটি এখন নিলাম উঠতে যাচ্ছে। জানেন, পৃথিবীর প্রথম এসএমএসে কী লেখা হয়েছিল?

মিরর, এবিপিলিভসহ একাধিক আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমের খবরে বলা হয়েছে, যুক্তরাষ্ট্রের প্রকৌশল সংস্থা ‘সেমা গ্রুপ’-এর ২২ বছর বয়সী প্রকৌশলী নেইল পাপওয়ার্থ বিশ্বের প্রথম এসএমএস পাঠান। তিনি এই বার্তাটি পাঠান বন্ধু রিচার্ড জারভিসের মোবাইল ফোনে।

তবে বার্তাটি পাঠানোর জন্য মোবাইল ফোন ব্যবহার করেননি নেইল। কম্পিউটার থেকে তিনি এই বার্তাটি পাঠান। এটি পাঠানো হয়েছিল ১৯৯২ সালের ৩ ডিসেম্বর। এখন প্রশ্ন হচ্ছে, কী লেখা হয়েছিল ওই বার্তায়?

তারিখটা যেহেতু ছিল ৩ ডিসেম্বর, তাই ২৫ ডিসেম্বর বড়দিনের শুভেচ্ছা জানিয়ে নেইল লিখেছিলেন, ‘মেরি ক্রিসমাস’ অর্থাৎ শুভ বড়দিন। ভোডাফোন মোবাইল নেটওয়ার্কের মাধ্যমে নেইলের বার্তাটি পৌঁছে যায় তার বন্ধুর কাছে। তিনি তখন ২২ বছরের টেস্ট ইঞ্জিনিয়ার ছিলেন। ভোডাফোনের জন্য শর্ট ম্যাসেজ সার্ভিস (এসএমএস)-র জন্য কাজ করছিলেন তিনি। ভোডাফোন ছিল তার ক্লায়েন্ট।

১৯৯২-এর ৩ ডিসেম্বর বন্ধু রিচার্ড জারভিসের ওর্বিটেল ৯০১ হ্যান্ডসেটে বড়দিনের শুভেচ্ছা বার্তা ওই টেক্সট ম্যাসেজের মাধ্যমে পাঠাতে সক্ষম হয়েছিলেন পাপওয়ার্থ। আর এভাবেই এটাই হয়ে ওঠে বিশ্বের প্রথম টেক্সট ম্যাসেজ।

মিররের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, আগামী ২১ ডিসেম্বর নিলামে উঠবে এই ম্যাসেজ। ফ্রান্সের অগট্টেস অকশন হাউস এর নিলামের আয়োজন করবে। এই ম্যাসেজে মাত্র ১৪ ক্যারেক্টার ব্যবহার করা হয়েছিল।

এই ম্যাসেজ নিলামে ক্রিপ্টোকারেন্সিতে কেনা যাবে। সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত প্রতিবেদন অনুসারে, এই ম্যাসেজ প্রায় ১ কোটি ৭১ লাখ টাকায় নিলাম করা হবে।

বিশ্বের প্রথম টেক্সট মেসেজের জন্য সবচেয়ে বেশি দর যিনি হাঁকবেন, বিক্রয়ের ক্ষেত্রে তাকেই অগ্রাধিকার দেওয়া হবে। এর মধ্যে থাকবে সেন্ডার ও রিসিভারের তথ্য সংক্রান্ত একটি ডিজিটাল ফাইলও।


আরও পড়ুন