রোজায় শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান চালু রাখার পক্ষে শিক্ষামন্ত্রী

শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি বলেছেন, রমজানে গরম পড়বে, তাই অনেকেই শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ চাইছেন। তবে শিক্ষার্থীদের ক্লাস করাটাও খুবই দরকার। দুটো বছর শ্রেণিকক্ষে ক্লাস হয়নি। এখন শ্রেণিকক্ষে ক্লাস করতে না পারলে তাদের জন্য সিলেবাস শেষ করা কষ্টকর হয়ে পড়বে।

শুক্রবার বাংলা একাডেমির আবদুল করিম সাহিত্যবিশারদ মিলনায়তনে এক অনুষ্ঠান শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে এ কথা বলেন তিনি।

শিক্ষামন্ত্রী বলেন, প্রাথমিকের মতোই মাধ্যমিক-উচ্চ মাধ্যমিকেও ২০ রোজা পর্যন্ত ক্লাস নেয়া হতে পারে। এ বিষয়ে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে আমরা যোগাযোগ করছি। হয়ত একই সময়ে আমরা শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলো বন্ধ ঘোষণা করব।

এদিকে করোনা বিধিনিষেধ শিথিলের সঙ্গেই রাজধানীতে বেড়েছে তীব্র যানজট। এছাড়াও প্রচন্ড গরমে শিক্ষাকার্যক্রম পরিচালনা না করার পক্ষে অধিকাংশ শিক্ষক। এমন পরিস্থিতিতে অনেকেই রমজানে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ চাইছেন। এমন পরিস্থিতিতে শিক্ষামন্ত্রী এমন মন্তব্য করলেন।

সংশ্লিষ্টরা বলছেন, আওয়ামী লীগের টানা তৃতীয় মেয়াদের প্রথম মেয়াদে যানজটের কথা চিন্তা করে রোজায় রাজধানীতে ক্লাস বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত হয়। এরপর টানা কয়েক বছর একই সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। এরপর করোনা মহামারীর কারণে উলোটপালট হয়ে যায় শিক্ষা ক্যালেন্ডার।

সর্বশেষ রোজায় প্রাথমিকে ক্লাস চলছে ২০ রোজা এবং মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিকে ২৪ রোজা পর্যন্ত ক্লাস নেয়ার বিষয়ে সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার।


আরও পড়ুন