কিশোরগঞ্জ কারাগারে হাজতির মৃত্যু

কিশোরগঞ্জ জেলা কারাগারে মো. শামীম (৩৫) নামে এক হাজতি মারা গেছে। গুরুতর অসুস্থ অবস্থায় আজ রোববার (৮ মে) ভোর রাতে কারাগার থেকে এ্যাম্বুলেন্সে করে কিশোরগঞ্জ ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। প্রথমে তাকে জরুরী বিভাগে ভর্তি করে চিকিৎসা দেওয়া হয়।

পরে অবস্থার অবণতি হরে তাকে হাসপাতালের তৃতীয় তলায় মেডিসিন ওয়ার্ডে ভর্তি করা হলে পৌনে ৫টার দিকে হাজতি শামীম মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়লে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে আনুষ্ঠানিকভাবে মৃত ঘোষণা করেন।

মারা যাওয়া হাজতি মো. শামীম জেলার বাজিতপুর উপজেলার মধ্যভাগলপুর গ্রামের মৃত কালা চাঁন মিয়ার ছেলে।

সে বাজিতপুর থানার একটি মাদক মামলার বিচারাধীন আসামি হিসেবে গত ২৮ ফেব্রুয়ারি জেলা কারাগারে আসে।

হাসপাতালের চিকিৎসকরা জানান, স্ট্রোকে আক্রান্ত হয়ে শামীমের মৃত্যু হয়েছে।

কিশোরগঞ্জ জেলা কারাগারের জেলার মো. নাসির উদ্দিন বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, হাজতি মো. শামীম কিছুদিন ধরে অসুস্থ ছিল। আজ রাতে হঠাৎ অসুস্থ পড়লে দ্রুত তাকে কিশোরগঞ্জ ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হয়।

ভোররাত ৪টা ৪৫ মিনিটে হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

হাজতির মৃত্যুর বিষয়টি পরিবারের লোকজনদের জানানো হয়েছে বলেও তিনি জানান।

কিশোরগঞ্জ ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালের উপ-পরিচালক (তত্ত্বাবধায়ক) ডা. মো. হেলাল উদ্দিন জানান, হাসপাতালে আনার পর কর্তব্যরত চিকিৎসকরা তাকে প্রয়োজনীয় চিকিৎসা সেবা প্রদান করেন। পরে পৌনে পাঁচটায় মো. শামীম নামের ওই হাজতিকে মৃত ঘোষণা করা হয়।


আরও পড়ুন