খেলার খবর - July 10, 2022

১৬ বছর পর বাংলাদেশ দলে নেই সাকিব-মুশফিক

দীর্ঘ ১৬ বছর পর বাংলাদেশ দল সাকিব আল হাসান ও মুশফিকুর রহিম দুজনকে ছাড়াই কোনো ওয়ানডে সিরিজ খেলতে নামছে। ২০০৬ সালে একই সঙ্গে অভিষেকের পর থেকে প্রতিটি ওয়ানডে সিরিজে এই দুজনের কমপক্ষে একজন দলে ছিলেনই। এবারই প্রথম দুজনের একজনও দলে নেই।

গায়ানায় এবারের সফরের প্রথম জয়ের সন্ধানে মাঠে নামছে টাইগাররা।

টেস্ট সিরিজের পর টি-টোয়েন্টিতেও জয়ের মুখ দেখেনি মাহমুদউল্লাহ-সাকিব-তামিমরা। রোববার (১০ জুলাই) ঈদের রাতে বাংলাদেশ ফের মাঠে নামছে জয়ের সন্ধানে।

এবার ওয়ানডে ফরম্যাটের লড়াই। ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে এই সিরিজে অবশ্য ফেবারিট বাংলাদেশই। সবচেয়ে ভালো যে এই ফরম্যাটেই খেলে টাইগাররা। তবে ওয়ানডে সিরিজটা তাদের খেলতে হচ্ছে বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার সাকিব ও মুশফিককে ছাড়াই।

ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরের আগেই পবিত্র হজ পালনের জন্য ছুটি নেন মুশফিক। অন্যদিকে টেস্ট ও টি-টোয়েন্টি সিরিজ খেললেও ওয়ানডে সিরিজ খেলছেন না সালিব। পরিবারের সঙ্গে সময় কাটাতে দল থেকে ছুটি নিয়ে আমেরিকায় পাড়ি দিয়েছেন সাকিব। মূলত ওয়ানডে সুপার লিগের অংশ না হওয়ায় এই সিরিজে তাকে ছাড় দিয়েছে ম্যানেজমেন্ট।

এক সঙ্গে এই দুই তারকার অনুপস্থিতি বাংলাদেশের  জন্য বড় ধাক্কা। শুধু বড় ধাক্কাই নয়,  বিরল ঘটনাও বটে। একই দিন দুজনের ওয়ানডে অভিষেকের পর দুজনের একজন হলেও খেলেছেন সব ওয়ানডে সিরিজে। সাকিব ও মুশফিকবিহীন সিরিজ এটাই প্রথম।

২০০৬ সালে জিম্বাবুয়ের হারারে স্পোর্টস ক্লাব গ্রাউন্ডে সিরিজের পঞ্চম ওয়ানডেতে একসঙ্গে অভিষেক ঘটে মুশফিক ও সাকিবের। অভিষেক ম্যাচেই সাকিব ব্যাট হাতে করেন ৩০ রান। বল হাতেও নেন এক উইকেট। তবে অভিষেকে তেমন কোন অবদানই রাখতে পারেননি মুশফিক।


আরও পড়ুন