বান্দরবানে হত্যার দায়ে ৫ জনের মৃত্যুদণ্ড

বান্দরবানে গরু ব্যবসায়ীকে অপহর‌ণের পর হত্যার দায়ে পাঁচজনের মৃত্যুদণ্ড দিয়েছেন আদালত। মঙ্গলবার (২০ সেপ্টেম্বর) দুপুরে জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক মো. ফজলে এলাহী ভূইয়া এ রায় দেন।

মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্তরা হলেন- উচিংনু মার্মা (২২), উবা চিং মার্মা (৩০), চিং নু মং হদা (২৩), মং নু মং (৫০), ও মং থু মং ক্যাসিং। বিজ্ঞ আদালতে ঘটনার সাক্ষ্য প্রমাণের ভিত্তিতে হত্যার বিষয়টি প্রমাণ হওয়ায় আসামিদের ৭ বছরের সশ্রম কারাদ ও ১০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। অনাদায়ে আরো ৬ মাসের কারাদন্ডের আদেশ দেন আদালত।

আদালত ও মামলার বিবরণীতে জানা যায়, ভিকটিম গরুর ব্যবসায়ী হওয়ার সুবাদে এজাহার বর্ণিত ১ নম্বর আসামি উচিংনু মার্মার কাছ থেকে ২ হাজার টাকা বায়না দিয়ে একটি গরু ক্রয় করেন। পরে ভিকটিম ক্রয়কৃত গরু আনার জন্য বাকি টাকা নিয়ে রোয়াংছড়ি উপজেলার হানসামাপাড়া বাজারে যাওয়ার পর নিখোঁজ হন। পরে পুলিশ আসামি উচিংনু মার্মাকে ২০০৭ সালের ১২ সেপ্টেম্বর সকাল ১০টায় বান্দরবান পৌরসভার মধ্যমপাড়া থেকে আটক করে জিজ্ঞাসাবাদ করলে আসামি জানান- তিনি অপর আসামিদের সহযোগিতায় দা দিয়ে ভিকটিম ছোট্ট মিয়াকে গলা কেটে খুন করে মরদেহ ৩৪৮ নম্বর হ্লাপাইক্ষ্যং মৌজস্থা ঝিরিমুখে মংজহ্লী মার্মার বাঁশবাগানে মাটিচাপা দেন এবং গরু বিক্রি বাবদ পাওনা ১২ হাজার টাকা আত্মসাৎ করেন। ২০০৭ সালের ১৬ সেপ্টেম্বর পুলিশ নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটসহ আসামি উচিংনু মার্মার বর্ণনা মতে ঘটনাস্থলে গিয়ে মাটি খুড়ে ভিকটিম ছোট্ট মিয়ার গলাকাটা মরদেহ উদ্ধার করে। এ সময় মামলায় আরেক আসামি রে অং মার্মার বিরুদ্ধে অভিযোগ প্রমাণিত না হওয়ায় তাকে বেকসুর খালাস দেওয়া হয়। রায় ঘোষণার সময় দণ্ডপাপ্ত আসামি চিং নু মং হদা আদালতে উপস্থিত ছিলেন এবং বাকি আসামিরা পলাতক রয়েছেন।

মামলার বিবরণীতে আরও জানা যায়, ঘটনার দিন ভিকটিমের ভাই মো. আমজু মিয়া বাদী হয়ে বান্দরবান সদর থানায় এজাহার দায়ের করলে পুলিশ ২০০৭ সালের ৩১ ডিসেম্বর এ ঘটনায় উসিংনু মার্মা, উবা চিং মার্মা, রে অং মার্মা, চিং নু মং হদা, মং নু মং এবং মং থু মং ক্যাসিংকে অভিযুক্ত করে চার্জশিট দাখিল করেন।

এ ব্যাপারে জেলা ও দায়রা জজ আদালতের ভারপ্রাপ্ত প্রশাসনিক কর্মকর্তা মো. কামরুল হাসান জানান, চট্টগ্রামের চন্দনাইশ উপজেলার দিয়াকুল এলাকার মৃত আনু মিয়ার ছেলে গরু ব্যবসায়ী ছোট্ট মিয়াকে হত্যার দায়ে বিজ্ঞ জেলা ও দায়রা জজ আদালত পাঁচজন আসামিকে মৃত্যুদণ্ড দিয়েছেন।

জেলা ও দায়রা জজ আদালতের রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী (পিপি) অ্যাডভোকেট মো. ইকবাল করিম বলেন, আসামিরা গরু বিক্রির কথা বলে ভিকটিমকে ঘটনাস্থলে নিয়ে বিক্রয়কৃত গরু না দিয়ে ভিকটিমের কাছ থেকে ১২ হাজার টাকা আত্মসাতের জন্য তাকে গলা কেটে খুন করে। এ ঘটনায় দায়েরকৃত মামলায় সাক্ষ্য-প্রমাণের ভিত্তিতে হত্যাকাণ্ডের বিষয়টি প্রমাণিত হয়েছে বিদায় আদালত আসামিদের দণ্ডবিধির ৩০২ ধারায় দোষী সাব্যস্ত করে প্রত্যেককে মৃত্যুদণ্ড ও ১০ হাজার টাকা জরিমানা এবং দণ্ডবিধির ২০১ ধারায় দোষী সাব্যস্ত করে প্রত্যেককে ৭ বছরের সশ্রম কারাদণ্ডাদেশ দেন। আদালতে উপস্থিত আসামি চিং নু মং হদাকে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।


আরও পড়ুন