ভাসানী বিশ্ববিদ্যালয়ের অবরুদ্ধ ভিসি মুক্ত

টানা তিনদিন ধরে অবরুদ্ধ থাকার পর টাঙ্গাইল মাওলানা ভাসানী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের ভাইস-চ্যান্সেলর (ভিসি) প্রফেসর ড. ফরহাদ হোসেনকে উদ্ধার করেছে সাধারণ শিক্ষার্থীরা। শুক্রবার সকাল সাড়ে ১১টার দিকে ভিসির কার্যালয়ে ‘কর্মচারী সিন্ডিকেট বন্ধ করতে হবে’শ্লোগান দিয়ে মিছিল করতে করতে প্রবেশ করে শিক্ষার্থীরা।

এ সময় বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষক, কর্মকর্তা ও কর্মচারী নিয়োগের স্বচ্ছতা চাওয়া এবং ভিসিকে অবরুদ্ধ করে রাখার পেছনে জড়িত কর্মচারীদের শাস্তির দাবি জানায়।

এদিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের আন্দোলনকারী তৃতীয় শ্রেণির ২২ কর্মচারী আন্দোলন থেকে সরে এসেছেন। শুক্রবার ভিসির কার্যালয়ের তালা খুলে দিয়ে অবরোধ তুলে নিয়েছেন আন্দোলনকারীরা।

জানা যায়, শুক্রবার সকালে শিক্ষার্থীরা ভিসিকে কার্যালয় থেকে বের করে নিয়ে আসতে চাইলে ভাইস-চ্যান্সেলর (ভিসি) প্রফেসর ড. ফরহাদ হোসেন শিক্ষার্থীদের জানান, বিষয়টি শিক্ষা মন্ত্রণালয় পর্যন্ত অবগত আছেন। সেখান থেকে নির্দেশনা আসলেই আমি আমার কার্যালয় থেকে বের হব। তবে আজকে আমি শিক্ষার্থীদের সাথে বের হয়ে জুম্মার নামাজ আদায় করব।

উল্লেখ্য, গত ৩০ অক্টোবর তৃতীয় শ্রেণির কর্মচারী সমিতির পক্ষ থেকে ভিসির কাছে স্মারকলিপি প্রদান করা হয়। স্মারকলিপিতে ১৪ দফা দাবি জানানো হয়। তৃতীয় শ্রেণিতে এডহক ভিত্তিতে কর্মরত ২২ জন কর্মচারীর চাকরি স্থায়ীকরণের দাবিতে গত বুধবার দুপুর থেকে ভাইস-চ্যান্সলর (ভিসি) প্রফেসর ড. ফরহাদ হোসেনকে তার নিজ কার্যালয়ে তালা লাগিয়ে অবরুদ্ধ করে রাখেন।


আরও পড়ুন