বাংলাদেশকে আড়াই হাজার কোটি টাকা দেবে বিশ্বব্যাংক

বাংলাদেশকে প্রথম ধাপে ২৫ কোটি ডলার ঋণ দিচ্ছে বিশ্বব্যাংক। বাংলাদেশি মুদ্রায় যার পরিমাণ প্রায় দুই হাজার ৬৭৫ কোটি টাকা। রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধের কারণে সৃষ্ট সংকট মোকাবেলায় এ ঋণ দেয়া হবে।

রোববার রাজধানীর শেরেবাংলা নগরে অর্থনৈতিক সম্পর্ক বিভাগের (ইআরডি) সচিব শরিফা খানের সঙ্গে বৈঠককালে বাংলাদেশে সফররত বিশ্বব্যাংকের দক্ষিণ এশিয়া অঞ্চলের ভাইস প্রেসিডেন্ট মার্টিন রাইজার এই আশ্বাস দেন।

বিশ্বব্যাংকের কাছে এক বিলিয়ন ডলার ঋণ চেয়েছিল বাংলাদেশ। সংস্থাটি প্রথম দফায় ২৫ কোটি ডলার দিচ্ছে। বাকি অর্থ দুই বছরের মধ্যে কয়েকটি কিস্তিতে দেবে।

ইআরডি কর্মকর্তারা জানান, অপরিহার্য নয় পণ্য আমদানি করতে ২০২১ সালের চেয়ে ২০২২ সালে ৮ দশমিক ২ বিলিয়ন ডলার বেশি ব্যয় হবে। এতে ডলার সংকটে পড়ে বাংলাদেশ। এজন্যই বিশ্বব্যাংকের কাছে বড় অংকের ঋণ চাওয়া হয়েছে।

রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধের কারণে গত কয়েক মাস ধরে বিশ্বব্যাপী সংকট দেখা দিয়েছে। এর ধাক্কা বাংলাদেশেও লেগেছে। মূল্যস্ফীতি বেড়েছে, টান পড়েছে রিজার্ভে। দেশের বাজারে দেখা দিয়েছে ডলার সংকট। পরিস্থিতি সামাল দিতে সরকার নানা উদ্যোগ নিয়েছে। বিশ্বব্যাংক ছাড়াও আইএমএফ থেকে বড় অংকের ঋণ পাবে বলে আশা করা হচ্ছে।


আরও পড়ুন