প্রেমের বিয়ে মেনে নেয়নি পরিবার, স্বামী-স্ত্রীর মরদেহ উদ্ধার

ঝিনাইদহের সদর উপজেলার হাটবাকুয়া গ্রামের মাঠ থেকে রমজান হোসেন (২০) ও মুক্তা খাতুন (১৮) নামে স্বামী ও স্ত্রীর ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

আজ বৃহস্পতিবার (২৪ নভেম্বর) সকাল ৯টার দিকে তাদের মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

রমজান হোসেন জেলা সদরের তালতলা হরিপুর গ্রামের চমু শেখের ছেলে এবং মুক্তা খাতুন হরিনাকুন্ডু উপজেলার বিন্নি গ্রামের গোলাম হোসেনের মেয়ে। রমজান হোসেন জেলা শহরের হামদহ এলাকার একটি মটর গ্যারেজে কাজ করতেন।

স্থানীয়রা জানায়, প্রায় দুই মাস আগে রমজান হোসেন প্রেমের সম্পর্কের জেরে পরিবারের অজান্তে মুক্তা খাতুনকে বিয়ে করে। এরপর থেকেই উভয় পরিবারের লোক তাদের সম্পর্ক মেনে নিচ্ছিলেন না। এ নিয়ে তাদের ও উভয় পরিবারের মধ্যে পারিবারিক বিরোধ চলছিলো। বৃহস্পতিবার সকালে মুক্তা খাতুনকে তার বাবার বাড়িতে নিয়ে যাওয়া কথা ছিলো। এর আগেই জেরে রমজান ও মুক্তা রাত ২টার দিকে বাড়ি থেকে বের হয়। পরে সকালে বাড়ির পার্শ্ববর্তী হাটবাকুয়া গ্রামের মাঠের একটি গাছ থেকে ওড়না দিয়ে প্যাঁচানো অবস্থায় তাদের ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

এ বিষয়ে ঝিনাইদহ নারিকেল বাড়িয়া পুলিশ ক্যাম্পের ইনচার্জ বিল্লাল হোসেন জানান, পারিবারিক কলহের জেরে এই আত্মহত্যার ঘটনা বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে। মৃতদেহ ময়না তদন্তের জন্য মর্গে পাঠানোর প্রক্রিয়া চলছে। ময়নাতদন্ত শেষে পরিস্কার হওয়া যাবে হত্যা নাকি আত্মহত্যা।


আরও পড়ুন