স্কুলের পরিত্যক্ত ঘরে মিললো দুই ভাইয়ের মরদেহ

দিনাজপুরের বিরলে স্কুলের পরিত্যক্ত ভবন থেকে বস্তাবন্দি অবস্থায় দুই শিশুর মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। শুক্রবার (২৫ নভেম্বর) সকালে উপজেলার ভবানীপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পরিত্যক্ত ঘর থেকে মরদেহ দুটি উদ্ধার করা হয়।

নিহতরা হলো- বিরল পৌরসভার শংকরপুর এলাকার শরিফুল ইসলামের ছেলে ইমন হাসান (০৭) ও ইমরান হাসান (০৩)।

বিরল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রেজাউল হাসান রেজা মরদেহ দুটি উদ্ধারের বিষয় নিশ্চিত করেছেন।

নিহত শিশুদের দাদা রফিকুল ইসলাম বলেন, শীতের কাপড় কিনে দেওয়ার কথা বলে বৃহস্পতিবার সন্ধ্যার দিকে ছেলে শরিফুল ইসলাম দুই নাতিকে সঙ্গে নিয়ে বিরল বাজারে যায়। রাত গভীর হলেও তারা বাড়িতে না আসায় আমরা বিভিন্ন জায়গায় অনেক খোঁজাখুঁজি করি। কিন্তু কোথাও তাদের সন্ধান পাইনি।

আজ সকাল ১০টার দিকে স্থানীয়দের মাধ্যমে জানতে পারি, বিরলের ভবানীপুর সরকারি প্রাথমিক স্কুলের ঘরে দুই শিশুর মরদেহ পড়ে আছে। পরে ঘটনাস্থলে এসে তাদের শনাক্ত করি। আগে থেকেই আমার ছেলে এই দুই শিশুকে মেরে ফেলে নিজেও বিষ খাবে বলে হুমকি দিয়ে আসছিল।

বিরল পৌরসভার মেয়র সবুজার সিদ্দিক সাগর বলেন, এক মাস আগেই শরিফুল ও তার স্ত্রী উম্মে কুলসুমের মধ্যে বিচ্ছেদ হয়ে যায়। এই বিচ্ছেদের জের ধরেই শিশু দুটির বাবা শরিফুল ইসলাম নিজ হাতে দুই শিশুকে বিষ খাইয়ে হত্যা করেছে। ঘাতক বাবা পলাতক রয়েছে। আমরা এ ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করছি।

দিনাজপুরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আসলামউদ্দিন বলেন, পারিবারিক কলহের জের ধরে শিশু দুটির বাবা শরিফুল ইসলাম নিজেই বাড়ি থেকে প্রায় সাত কিলোমিটার দূরে ভবানীপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের একটি পরিত্যক্ত কক্ষে খাবারের সঙ্গে বিষ খাইয়ে হত্যা করেছে বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে। পুলিশ লাশ দুটি উদ্ধার করে দিনাজপুর এম আব্দুর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে প্রেরণ করেছে। পুলিশ ঘাতক বাবাকে গ্রেপ্তারের জন্য অভিযান অব্যাহত রেখেছে।


আরও পড়ুন